সংলাপে সন্তুষ্ট নন ড. কামাল

গতকাল রাতে শেষ হওয়া প্রধানমন্ত্রী ও ঐক্যফন্টের নেতাদের মাঝে আলোচিত সংলাপ শেষ হওয়ার পর ড. কামাল হোসেন বলেছেন, তিনি এ সংলাপে সন্তুষ্ট নন।

সংলাপ শেষে ড. কামাল হোসেন বলেন ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে গণভবনে গিয়েছিলাম। আমাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সংলাপ ছিল। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার মতো আমরা সেখানে ছিলাম। আমাদের নেতারা সবাই বক্তব্য দিয়েছে। তারা তাদের নানা ধরনের অভিযোগের কথা বলেছেন। সরকারের বিভিন্ন বিষয়ে উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী বেশ লম্বা বক্তব্য দিয়েছেন। তবে আমরা সে বক্তব্যে বিশেষ কোনও সমাধান পাইনি।’
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ শেষে ড.কামাল হোসেন তার বেইলি রোডের বাসায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘সভা সমাবেশের বিষয়ে একটি ভালো কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়ে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী কথা বলবেন।’
সভা-সমাবেশের বিষয়ে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ঢাকাসহ সারা দেশে রাজনৈতিক দলগুলোর সভা সমাবেশ করতে কোনও বাধা থাকবে না। তিনি সেটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বলে দিয়েছেন। সভা সমাবেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহযোগিতা করবে।

তিনি বলেন, সংলাপের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী সূচনা বক্তব্য দিয়েছেন। এরপর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা দাবি উত্থাপন করেছেন।

এসময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা আলোচনায় সন্তুষ্ট নই। প্রধানমন্ত্রী রাজনৈতিক মামলার তালিকা চেয়েছেন।’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কোনও কথা হয়েছে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রী কোনও সুনির্দিষ্ট কথা বলেননি।’

সংলাপ নিয়ে বিএনপি আশাবাদী কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি খুব সন্তুষ্ট নই। আমরা তফসিলের ব্যাপারে বলেছি। তিনি বলেছেন, তাদের দেওয়ার এখতিয়ার নেই। তফসিল দেওয়ার এখতিয়ার নির্বাচন কমিশনের।

নির্বাচনের তফসিল পেছানো না হলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অবস্থান কী হবে এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের ঐক্যফ্রন্টের যে কর্মসূচি আছে, সেইভাবে চলবে।

এসময় ড. কামাল হোসেন বলেন,  ‘আমরা সংলাপের সুযোগ পেয়েছি।  আমরা আমাদের কথা প্রধানমন্ত্রীকে বলে এসেছি। উনি জানতে পেরেছেন। উনি ওনার কথাগুলো বলেছেন।

জেএসপির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, ‘আমরা ৭ দফা কর্মসূচি দিয়েছি। মানা-না মানার দায়িত্ব হলো সরকারের। আমাদের কর্মসূচি আমরা দিয়েছি, এই নিয়ে আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।’

আজকের সংলাপে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কী পেয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে রব বলেন, ‘একদিনে সব পাওয়া যায় না।’

পূর্ববর্তি সংবাদ‘আসিয়া বিবির মুক্তির রায় যথাযথ মনে হয়নি’—মুফতি আবুল হাসান মুহাম্মাদ আবদুল্লাহ
পরবর্তি সংবাদআসামে ৫ বাঙালিকে গুলি করে হত্যা