ক্রিকেট খেলা নিয়ে পাকিস্তানে সংঘর্ষে নিহত ৭

ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে গোলাগুলিতে সাতজন নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাতে প্রদেশের অ্যাবোটাবাদ জেলায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে উভয়পক্ষে দু’জন করে চারজন পরস্পরের ভাই। খবর পাক সংবাদমাধ্যম ডন নিউজের।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন অনলাইনের খবরে জানা যায়, বাচ্চাদের ক্রিকেট ম্যাচ নিয়ে মাঠের ভেতর বাদানুবাদ হয়। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে পুলিশের সামনেই সাতজনের মৃত্যু হয়।

অ্যাবোটাবাদ পুলিশের ডেপুটি সুপারিন্টেডেন্ট ইজাজ খান জানিয়েছেন, বাচ্চাদের ক্রিকেট ম্যাচ চলছিল। সেখানে দুই পক্ষ সামান্য ঝামেলা শুরু করে। তারপর তারা অভিযোগ দায়ের করার জন্য থানায় আসে। এসময় পুলিশ দুই পক্ষকেই বোঝানোর চেষ্টা করতে থাকে। কিন্তু হঠাৎ এক পক্ষ গুলি করতে শুরু করে। তারপর অন্য পক্ষও গুলি ছোঁড়ে। ফলে থানা চত্বরেই সাতজন মারা যায়। আর আহত হয় একজন।

স্থানীয়রা বলছেন, পুলিশের সামনেই দুই পক্ষ উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করছিল। তারপর একজন হঠাৎ বন্দুক বের করে গুলি চালাতে শুরু করে। দুই পক্ষই আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বচসার জন্য তৈরি হয়েই এসেছিল। দুই পক্ষই প্রবল গোলাগুলি শুরু করে। যে পক্ষ প্রথম গুলি চালিয়েছিল সেই দলের তিনজন মারা গেছে। আর অন্য পক্ষের চারজনের মৃত্যু হয় ঘটনাস্থলেই। আরও একজন গুরুতর আহত হয়েছে।

পূর্ববর্তি সংবাদহাজার বছরের ওয়াজ-মাহফিল কীভাবে বন্ধ করবেন?
পরবর্তি সংবাদসমঝোতা নেই, কোন পথে হাঁটছে নির্বাচন?