‘একটি অসম ও নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনের পথে অগ্রসর হচ্ছে নির্বাচন কমিশন’

ইসলাম টাইমস ডেস্ক : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নগর দক্ষিণের আহ্বায়ক মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেছেন, নির্বাচন কমিশন একটি অসম ও নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনের পথে অগ্রসর হচ্ছে।

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কার্যনির্বাহী পরিষদ ও থানা দায়িত্বশীলদের যৌথ সভায় সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা ইমতিয়াজ এসব কথা বলেন।

মাওলানা ইমতিয়াজ বলেন, ‘একটি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের পূর্বশর্ত হচ্ছে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলা এবং নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সকল দলের জন্য সমান সুযোগ-সুবিধা তৈরি করা। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে নির্বাচন কমিশন এ ব্যাপারে শতভাগ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। মনে হচ্ছে নির্বাচন কমিশন একটি অসম ও নিয়ন্ত্রিত নির্বাচনের পথেই অগ্রসর হচ্ছে।’

ইসলামী আন্দোলনের এ নেতা বলেন,‘তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সকল রাজনৈতিক দল সমান সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার কথা থাকলেও বিরোধী দলগুলো ১০ তারিখ প্রতীক বরাদ্দ পর্যন্ত অপেক্ষার প্রহর গুনছে। কিন্তু ক্ষমতাসীন দল রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত টিভি ও বেতারে হরদম প্রচারণা চালাচ্ছে। ডিজিটাল বিলবোর্ড এখনো অপসারণ করা হয়নি। পীর সাহেব চরমোনাই-এর ১০ দফা দাবির মধ্যে অন্যতম ছিল সরকারের পদত্যাগ। কেননা দলীয় সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়।

মাওলানা ইমতিয়াজ আরও বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, সরকার শুধু রুটিন ওয়ার্ক করবে। কিন্তু প্রশাসন ও মিডিয়ায় সরকারের প্রভাব শতভাগ নির্বাচন কমিশন অন্যতম সংস্থা বেতার ও টেলিভিশন ইনুর প্রভাব মুক্ত করতে পারেনি। সুতরাং বলা যায় কমিশন তাদের ক্ষমতা প্রয়োগ করছে না। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড স্বপ্নই থেকে যাচ্ছে।’

নগর দক্ষিণ সেক্রেটারী মাওলানা এ বি এম জাকারিয়ার পরিচালনায় আরও বক্তব্য দেন সহসভাপতি আবদুর রহমান, আলতাফ হোসেন, জয়েন্ট সেক্রেটারী আবদুল আউয়াল, ডা. শহিদুল ইসলাম, মুহাম্মাদ নুরুজ্জামান সরকার, ঢাকা-৬ আসনের প্রার্থী মানোয়ার খান ও ঢাকা-৮ আসনের প্রার্থী আবুল কাশেম।

পূর্ববর্তি সংবাদমনোনয়নবঞ্চিতরা ইটপাটকেল ছুড়েছে বিএনপির গুলশান কার্যালয়ে
পরবর্তি সংবাদপ্রবাসীরা ভোট দিতে পারবেন যেভাবে