পদ্মার ওপারে হবে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর: বিমান প্রতিমন্ত্রী

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাজ শুরু হয়নি তা নয়, কাজ শুরু হয়েছিল। মুন্সিগঞ্জে স্থানও নির্ধারণ করেছিলাম। কিন্তু স্থানীয় মানুষের বিরোধিতার কারণে সেটা হয়নি। এখন নতুনভাবে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি শেষ হয়েছে। সাইট সিলেকশন চূড়ান্ত হওয়ার পথে। এটা হবে পদ্মাসেতুর ওপারে, সেতুর পাশেই। এ বিমানবন্দর হবে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সেন্টার পয়েন্ট।

মঙ্গলবার রাজধানীর কুর্মিটোলায় বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) সদর দফতরে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিমান হবে আকাশে শান্তি আর বিমানবন্দর হবে ভূমিতে প্রশান্তির নীড়। এ লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের নিরলস প্রয়াস অব্যাহত আছে।

তিনি বলেন, ‘প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের এভিয়েশন হাব হিসেবে বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে সরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ করতে যাচ্ছে। পাশাপাশি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনাল, কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীতকরণ এবং সিলেট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উন্নয়নে মেঘা প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে।’

প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, ‘আমাদের হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ওয়ান ক্যাটাগরিতে উন্নীত হওয়ার সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন অথরিটি আগামী মার্চ মাসে আসবে। তাদের সনদ পেলেই নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালু হবে।’

তিনি বলেন, ‘এয়ারপোর্টের সব ধরনের দৌরাত্ম্য বন্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর সেবার মান বৃদ্ধি করা হবে। নতুন নতুন রুট চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

পরে প্রতিমন্ত্রী হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরের বিভিন্ন স্থাপনা ও উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। তিনি যাত্রী সেবার মান বাড়িয়ে যাত্রীদের সন্তুষ্টি অর্জনে নিষ্ঠার সাথে কাজ করতে কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

পূর্ববর্তি সংবাদটিআইবির প্রতিবেদন মনগড়া : রফিকুল ইসলাম
পরবর্তি সংবাদবাম হাতে পানি পান করার বিধান কী?