সৌদি যুবরাজের পাক-ভারত সফর, কার প্রাপ্তি কতোটুকু?

ইসলাম টাইমস ডেস্ক : কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যে দেশ দুটি সফর করলেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান। তাই যুবরাজের সফর নিয়েও চলছে অনেক রকম হিসাব। হিসাবে অবশ্য পাকিস্তান থেকে এগিয়ে রয়েছে ভারত। পাকিস্তান সফরের সময় যুবরাজ ২ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেন।

ঠিক তার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভারতে এসে সৌদি যুবরাজ দুই বছরে ভারতে অন্তত ১০ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের সম্ভাবনা তুলে ধরেন।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই ঘোষণা অপ্রত্যাশিত নয়। কারণ, তেল-গ্যাসের চাহিদা বৃদ্ধির হারের দিক থেকে ভারত এখন বিশ্বের প্রথম, চীনকেও ছাড়িয়ে গেছে তারা। সুতরাং সম্ভাবনাময় এই বাজারের প্রতি সৌদি আরবের নজর থাকবে এটাই স্বাভাবিক। বিশেষত, যেখানে এ দেশের তেল শোধন, পেট্রোপণ্যে বিনিয়োগের কথা আগেই জানিয়েছে রিয়াদ। এখানে পেট্রলপাম্প খুলতে তাদের আগ্রহের কথা স্পষ্ট বলেছে রিয়াদ।

তবে সৌদির বিনিয়োগ-আগ্রহ শুধু তেল, পেট্রোপণ্যে আটকে থাকেনি, সৌদি আরব কৃষি, পরিকাঠামো ইত্যাদি খাতেও বিনিয়োগের কথা বলেছে।

সৌদি অ্যারামকোর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আমিন নাসের ভারতের সম্ভাবনার প্রসঙ্গে বলেন, ২০৫০ সালের মধ্যে ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি হতে যাচ্ছে। তখন তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে যাবে। ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বের মোট দেশজ উৎপাদনের ১৫ শতাংশই ভারতে উৎপাদিত হবে। আর অর্থনৈতিক শক্তি পশ্চিম থেকে পূর্বে স্থানান্তরিত হবে।

সফরে দুই দেশের পর্যটন, আবাসন, পরিকাঠামো খাতে বিনিয়োগের চুক্তি হয়েছে। বিনিয়োগ নিয়ে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজসহ কয়েকটি কোম্পানির সঙ্গে কথা বলছে বিশ্বের বৃহত্তম তেল-গ্যাস সংস্থা সৌদি অ্যারামকো। ভারতে ব্যবসা বাড়াতে আগ্রহী সৌদি পেট্রোকেম সংস্থা স্যাবিকও।

পূর্ববর্তি সংবাদপৃথক পৃথক বন্দুকযুদ্ধে ৫ জেলায় ৬ জন নিহত
পরবর্তি সংবাদচকবাজারের ঘটনায় সরকারের দায় আছে, সরকার কাজও করছে : ওবায়দুল কাদের