সীতাকুণ্ডে মদের বিষক্রিয়ায় ব্যবসায়ীর মৃত্যু

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে মদ খেয়ে নাছির উদ্দিন (৩৮) নামে এক ব্যবসায়ী মারা গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মদের আসরে নিহতের অপর সঙ্গী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল হোসেন রবির অবস্থাও সংকটাপন্ন বলে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাত আটটার দিকে সীতাকুণ্ড পৌর সদরস্থ সৌদিয়া হোটেলের (আবাসিক) একটি কক্ষে হোটেলটির মালিক এস্কান্দর, রবিউল হোসেন ও নাছির উদ্দিন  মদ পান করেন।

পরদিন ঘুম থেকে উঠে আবারও তাঁরা মদ পান করেন।

বেলা তিনটায় নাছির মোটরসাইকেলযোগে তাঁর বাসায় যান। রবিউল হোসেন বাড়ি যান সিএনজিচালিত অটোরিকশাযোগে। তখন তাঁরা নেশাগ্রস্ত থাকলেও অসুস্থ ছিলেন না।

হোটেল ব্যবস্থাপক শরীয়ত উল্লাহ জানান, সেদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি শুনতে পান নাছির মারা গেছেন। রবিউলের অবস্থা সংকটাপন্ন। গতকাল বুধবার সকাল থেকে তিনিও অসুস্থ বোধ করছেন বলে জানান।

মদের আসরে থাকা সৌদিয়া হোটেল মালিক এস্কান্দর হোসেন পলাতক রয়েছেন। এ ঘটনায় হোটেলটির ব্যবস্থাপক শরীয়ত উল্লাহকে আটক করা হয়েছে। শরীয়ত উল্লাহ নিজেও মদপানে অসুস্থ হয়েছেন। তাঁকে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ নাছিরের লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি মর্গে প্রেরণ করে।

সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেছেন এসআই এস এম জুলফিকার হোসেন। তিনি বলেন, লাশের গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। তবে ত্বকের বর্ণ পরিবর্তন হয়েছে। হাত–পায়ের নখগুলো কালো হয়ে গেছে।

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলওয়ার হোসেন বলেন, মদের বিষক্রিয়ায় নাছির মারা গেছেন। রবিউলের অবস্থাও সংকটাপন্ন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড। রাজনৈতিক নাকি ব্যবসায়িক বিরোধের কারণে হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হবে। মূলত এ দুটি বিষয়কে সামনে রেখে তদন্ত শুরু করেছেন তাঁরা।

 

 

 

 

পূর্ববর্তি সংবাদফেইস বুকে ভাইরাল হল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীর কাঁচা হাতে লেখা চিঠি
পরবর্তি সংবাদভারতের অ্যান্টি-স্যাটেলাইট মিসাইল পরীক্ষা , যুক্তরাষ্ট্রের সতর্ক-বার্তা