এফ আর টাওয়ার থেকে বেঁচে ফিরে যা বললেন সেঁজুতি

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বনানী অগ্নিকাণ্ড থেকে প্রাণে বেঁচে এসেছেন এমন একজন হলেন সেঁজুতি দৌলাহ। বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে কর্মস্থল এফ আর টাওয়ারের সামনে এসে গণমাধ্যমকে তিনি শোনান তার বেঁচে ফেরার গল্প।

সেঁজুতি বলেন, প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার দুপুরেও কর্মব্যস্ত সময় পার করছিলাম। হঠাৎ চিৎকার আর কান্নাকাটির শব্দ শুনতে পাই।

‘কিছু ঘটেছে ভেবে চেয়ার থেকে উঠে দৌঁড় দিই। ততক্ষণেই বুঝতে পারি ভবনে আগুন লেগেছে। তখন অফিসের সহকর্মীরাও দিগ্বিদিক ছুটোছুটি করতে শুরু করেন,‌‌’ যোগ করেন সেঁজুতি।

এফ আর টাওয়ারের ডার্ড গ্রুপে পরিচালক (অর্থ) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন সেঁজুতি। তিনি জানান, এফ আর টাওয়ারের ১৩ তলায় তার অফিস। সেখান থেকে সিঁড়ি দিয়ে নিচে নামার চেষ্টা করেন, তখন আগুনের এতো ধোঁয়া যে, তিনি চোখ দিয়ে কিছুই দেখতে পাচ্ছিলেন না।

পরে তিনি দৌঁড়ে ভবনের ছাদে চলে যান। সেখানে গিয়ে পাশের আহমেদ টাওয়ারে লাফ দিয়ে ওই ভবন দিয়ে নিচে নেমে আসেন সেঁজুতি।

তার ভাষ্য, ‘যখন ছাদে যাই, তখন কিভাবে যে পাশের ভবনে গিয়েছি, তখনকার কোনো স্মৃতি মাথায় নেই। কী ভয়ঙ্কর সে দৃশ্য, সেটা বুঝিয়ে বলা সম্ভব নয়।’

সেঁজুতি যখন তার বেঁচে যাওয়ার মুহূর্তের বর্ণনা দিচ্ছিলেন, তখন বারবার কান্নায় ভেঙে পড়ছিলেন। নিজে বেঁচে গেলেও অনেক মানুষের মৃত্যু ব্যথিত করেছে তাকে।

তিনি বলেন, মনে হচ্ছিল আজই জীবনের শেষ দিন। আসলে জীবন আর মৃত্যুর তফাৎ কী? সেটা বিপদে পড়লেই কেবল অনুভব করা যায়, যা আজ আজ বুঝতে পেরেছি।

পূর্ববর্তি সংবাদসকাল থেকে আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে
পরবর্তি সংবাদবনানী অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর