মাদরাসার নামে সাদপন্থীদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাদপন্থীদের মাদরাসার শিক্ষার্থীদের নিজ মাদরাসার নামে যথাযথ নিয়মে পরীক্ষা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সাদপন্থীদের দায়ের করা এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে হাইকোর্টে এই নির্দেশ দেন। সাদপন্থী আলেম মুফতি জিয়া বিন কাসেম ইসলাম টাইমসে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেছেন, আমাদের মাদরাসাগুলো বাংলাদেশ কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকভূক্ত। বেফাকের মাধ্যমে আমরা হাইয়াতুল উলয়ার অংশ। কিন্তু এবার যখন প্রবেশপত্র এলো, আমরা দেখলাম আমাদের প্রবেশপত্রে মাদারাসার নাম নেই। মাদরাসার নামের স্থানে বেফাক লেখা এবং নিচে প্রিন্সিপালের স্বাক্ষর। বেফাক কীভাবে মাদরাসা হলো সেটা আমাদের বোধগম্য ছিলো না এবং তার প্রিন্সিপাল কে সেটাও আমরা বুঝতে পারিনি। বেফাকের কাছে লিখিতভাবে আবেদন করার পরও তারা আমাদের প্রবেশপত্র সংশোধন করে দেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আদালতে গিয়েছে এবং মহামান্য আদালত যথা নিয়মে আমাদের পরীক্ষা গ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছেন।

এই বিষয়ে যোগাযোগ করলে বেফাকের মহাপরিচালক মাওলানা যোবায়ের আহমদ চৌধুরী ইসলাম টাইমসকে বলেন, বিষয়টি এখনও আমরা জানি না। আপনার মাধ্যমেই জানলাম। আইনি নোটিশ হাতে পেলে করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

মাদরাসার নাম না থাকার বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেফাক ও হাইয়াতুল উলয়া আহলে সুন্নাহ ওয়াল জামাতের বোর্ড। যারা আহলে সুন্নাহ ওয়াল জামাতের মতাদর্শে বিশ্বাসী নয় তাদের এই বোর্ডে থাকা উচিৎ হবে না, রাখাও উচিৎ হবে না। যদিও আমরা এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করিনি। কিন্তু ছাত্ররা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় এজন্য আমরা বোর্ডের অধীনে একটা পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিলাম। বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো।

পূর্ববর্তি সংবাদখালেদা জিয়ার চিকিৎসা ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিএনপির কূটনৈতিক বৈঠক
পরবর্তি সংবাদআল্লামা তাকি উসমানির উপর হামলা, আহত ড্রাইভার আমিরের মৃত্যু