শেরপুরে নেশাখোর যুবকের দায়ের আঘাতে চটপটি বিক্রেতা নিহত

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: শেরপুরে এক নেশাখোর যুবকের দায়ের আঘাতে এক চটপটি বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাতে শহরের গৌরীপুর এলাকার নতুন বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মীরগঞ্জ কাঁচাবাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম মো. শাহা আলম (৫০)। তিনি শেরপুর জেলা শহরের চাপাতলী এলাকার ওয়াহেদ আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ সাইদুল ইসলামকে (৩৫) আটক করেছে। সাইদুল শহরের চাপাতলী ঋষিপাড়ার মৃত আলাল উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চটপটি বিক্রেতা শাহা আলম শুক্রবার সন্ধ্যার পর শহরের গৌরীপুর এলাকার নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চটপটি বিক্রি করতে যান। এ সময় শাহা আলমের সঙ্গে যুবক সাইদুলের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সাইদুলের তাড়া খেয়ে শাহা আলম দৌড়ে বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মীরগঞ্জ কাঁচাবাজারে যান। সেখানে ধারালো দা দিয়ে শাহা আলমকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেন সাইদুল।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় শাহা আলমকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক  তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে খবর পেয়ে সদর থানা-পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে সাইদুলকে আটক করে।

নিহত শাহা আলমের স্ত্রী বুলি বেগম  বলেন, তাঁর স্বামীর সঙ্গে কারও শত্রুতা ছিল না। সাইদুল কেন তাঁর স্বামীকে খুন করলেন তা তিনি জানেন না। তবে এ ঘটনার জন্য দায়ী সাইদুলের বিচার দাবি করেন তিনি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বিল্লাল হোসেন শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টায় গণমাধ্যমকে বলেন, এ ঘটনায় এখনো থানায় কেউ অভিযোগ দেননি। আটক সাইদুল নেশাগ্রস্ত ছিলেন। তাঁকে একাধিকবার জিজ্ঞাসাবাদ করেও হত্যার কারণ জানা যায়নি।

তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব শত্রুতা বা টাকা-পয়সার লেনদেনের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিল্লাল হোসেন, আমিনুল ইসলাম ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পূর্ববর্তি সংবাদগাইবান্ধায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে, নিহত ৫
পরবর্তি সংবাদহার্ভাডের গবেষণা: ‘ কোমল পানীয় ডেকে আনতে পারে আগাম মৃত্যু’