সাদপন্থীদের রিটে হাইকোর্টের রায়, যা ভাবছে হাইয়া-বেফাক

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত ৪ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সাদপন্থীদের রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট আল-হাইয়াতুল উলয়া লিল-জামিয়াতিল কওমিয়া, বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের প্রতি পরীক্ষা সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে। নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সাদপন্থী মাদরাসার শিক্ষার্থীদের নিজ মাদরাসার নামে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

তবে এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো নির্দেশনা পায়নি বলে জানিয়েছেন হাইয়াতুল উলয়া ও বেফাকের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। তারা বলেছেন, আমরা গণমাধ্যম সূত্রে বিষয়টি জানতে পেরেছি। আনুষ্ঠানিক নির্দেশনা না পেয়ে কোনো মন্তব্য করবো না।

আজ বেফাকের যুগ্ম মহাসচিব ও হাইয়াতুল উলয়ার সদস্য মুফতি নুরুল আমিনও ইসলাম টাইমসকে এমনটিই বলেন। তার ভাষায়, চিঠি (লিখিত নির্দেশনা) না পাওয়া পর্যন্ত আমরা কীভাবে বুঝবো তারা কোথায় গিয়েছিলো এবং কী নির্দেশনা পেয়েছে। সেটা পেলে মুরব্বিরা আলোচনা-পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেবেন।

তিনি আরও বলেন, ‘যারা রিট করেছে তারা কিন্তু বেফাক অফিসে এসে সম্মত হয়েছিলো যে, মাদরাসার নাম ছাড়া বেফাকের অধীনে পরীক্ষা দেবে এবং পরীক্ষার পর তাদের ব্যাপারে আবারও আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হবে। এখন জানলাম, তারা হাইকোর্টে গেছে।’

তবে এই রিট নিয়ে চিন্তিত নন বলে জানিয়েছেন বেফাকের অন্য একটি সূত্র। তার মতে, এই রিটের ফলে সাদপন্থীদের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ হবে।

নাম না প্রকাশের শর্তে বেফাকের একজন সিনিয়র দায়িত্বশীল বলেছেন, তারা এই বিষয়ে আইনজীবীদের সঙ্গে ইতিমধ্যেই যোগাযোগ শুরু করেছেন। আইনিভাবেই বিষয়টির সমাধানের চেষ্টা করবেন তারা।

পূর্ববর্তি সংবাদসিলেটে জুয়ার আসরে মেয়র আরিফের হানা, সাধারণ মানুষের কৃতজ্ঞতা
পরবর্তি সংবাদসাতক্ষীরা সীমান্তে ৯ লাখ টাকার ভারতীয় পণ্য জব্দ করল বিজিবি