শিক্ষকদের নৈতিকতার এতোখানি অবনতি কীভাবে হলো, জিজ্ঞাসা রাশেদা কে চৌধুরীর

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ”একসময়ে দেখা গেছে শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত হওয়া প্রতিরোধ করতে গিয়ে শিক্ষক লাঞ্ছিত হয়েছেন। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, একজন শিক্ষকের কাছে শিক্ষার্থী হয়রানির শিকার হচ্ছেন। সেই চিত্রটা কীভাবে বদলে গেলো? কারো কারো নৈতিকতার এতোখানি অবনতি কীভাবে হলো?” বলেছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী।

সম্প্রতি শিক্ষকদের হাতে ছাত্রীদের লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি  বিবিসি বাংলাকে এসব কথা বলেন।

৯ এপ্রিল বিবিসির এক প্রতিবেদনে রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, এখন দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য নতুন আর গুরুতর চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে।  এজন্য তিনি যেসব পরামর্শ দিচ্ছেন:

শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ কারিকুলাম আরেকবার খতিয়ে দেয়া উচিত এবং সেখানে নৈতিকতার বিষয়ে আরো জোর দেয়া উচিত।

এসব ঘটনায় আইন আছে, নীতি আছে, কিন্তু সেটার কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করা উচিত। অপরাধীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া উচিত, যাতে অন্য কেউ এ ধরণের ঘটনা ঘটানোর সাহস না পায়।

অভিযোগ উত্থাপনকারী শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সুরক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে, যাতে তারা পরবর্তীতে কোনরকম হয়রানি বা সমস্যার মুখোমুখি না হন।

রাশেদা কে চৌধুরী বলছেন, কোন অভিযোগই হালকা ভাবে দেখার সুযোগ নেই। এটা নিশ্চিত করা গেলে এ ধরণের ঘটনা রোধ করা সম্ভব হবে।

পূর্ববর্তি সংবাদ২০০ উপজেলায় স্বয়ংক্রিয় আবহাওয়া স্টেশন স্থাপন করবে সরকার
পরবর্তি সংবাদআবারও প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন নেতানিয়াহু!