পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল, হাটহাজারী যাচ্ছেন বেফাক নেতৃবৃন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের জামিয়া আহলিয়া মঈনুল ইসলাম হাটহাজারীসহ অন্যান্য মাদরাসার ফজিলত স্তরের পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাক। তবে আল্লামা আহমদ শফীকে বিষয়টি অবগত করতে জন্য চট্টগ্রাম যাবেন বেফাকের ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল হাটহাজারীতে যাবেন।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় যাত্রাবাড়ীতে বেফাকের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে খাস কমিটির একটি জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সূত্র ইসলাম টাইমসকে এসব তথ্য দিয়েছেন।

বেফাকের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা আশরাফ আলীসহ প্রতিনিধি দলে আরও রয়েছেন আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা সাজিদুর রহমান ও মাওলানা মাহফুজুল হক।

উল্লেখ্য, গত ১৩ এপ্রিল প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে আল-হাইয়াতুল উলইয়া লিল-জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের অধীনে অনুষ্ঠিত তাকমিল স্তরের এবং বেফাকের অধীনে অনুষ্ঠিত ফজিলত স্তরের পরীক্ষা বাতিল করা হয়। কিন্তু তারপরও হাটহাজারী মাদরাসাসহ আরও কয়েকটি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে বেফাকের সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী, সহ-সভাপতি আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ, আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী, মাওলানা আব্দুল হামিদ (মধুপুরের পীর), মুফতী মোহাম্মদ ওয়াক্কাস, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মুসলেহুদ্দীন রাজু, মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা মাহফুজুল হক, মুফতি নুরুল আমিন প্রমুখ।

পূর্ববর্তি সংবাদরমজানে নিত্যপণ্যের দাম না বাড়ার আশ্বাস বাণিজ্যমন্ত্রীর
পরবর্তি সংবাদবেগম জিয়ার লন্ডন যাওয়ার ব্যাপারে কিছু জানে না পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়