প্রলুব্ধ করে দেশ থেকে মানব পাচার করা হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ও চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে বাংলাদেশ থেকে বিদেশে মানুষ পাচার করা হয়। তবে এখন প্রলোভিত হওয়া মানুষদের সংখ্যা ধীরে ধীরে কমে আসছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

আজ শনিবার সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে মানব পাচার প্রতিরোধে ইউএনডিপির সহযোগিতায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আয়োজিত দিনব্যাপী সেমিনারের প্রথম সেশনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ থেকে এখন জোর করে নয় বরং প্রলুব্ধ করে বিদেশে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এতে তারা ভিকটিম হচ্ছে, অনেকে বিভিন্ন দেশে আটকে রয়েছেন।

বাংলাদেশের কারাগারেও ৪৯৫ জন বিদেশি আটকে রয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, এদের মধ্যে ৫৭ জনের শাস্তি হয়েছে। ৮৬ জন মুক্ত হলেও তাদেরকে কোনো দেশ নিতে আসছে না, ফলে বাধ্য হয়েই তারা কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

বিদেশ যেতে প্রলোভিত হওয়া মানুষদের সংখ্যা ধীরে ধীরে কমে আসছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, অমরা এখন একটি ভালো জায়গায় আছি। অনেকে এখন বাংলাদেশে আসছেন নিজেদের ভাগ্য বদলানোর জন্য। বাংলাদেশ থেকে মানবপাচারের ফিগার অনেক কমেছে। প্রলুব্ধ হয়ে কেউ যেন দেশ ছেড়ে না যায়, তা নিশ্চিত করতে সবাই মিলে একযোগে কাজ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে করণীয় সবকিছু করবে সরকার। পাচার ঠেকাতে সব আইন যথাযথভাবে প্রয়োগ করা হচ্ছে। সব জেলায় কমিটি কাজ করছে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, পাচারের শিকার হয়ে বিভিন্ন দেশে যারা দু:সহ জীবন যাপন করছে, তাদের মানবাধিকার নিশ্চিত করে ফিরিয়ে আনার তৎপরতা চলছে।

 

 

পূর্ববর্তি সংবাদভারতে নির্বাচনী প্রচারণায় বিজেপি প্রার্থীরা মুসলিম বিদ্বেষী বক্তব্য দিয়েই চলছে
পরবর্তি সংবাদবাহিনীর জোরে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে সরকার: ফখরুল