রান্নার কাজকে দাসের কাজ বলে সৌদি থেকে পালালেন যে নারী!

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ”আমাদের মুখ ঢেকে রাখতে হতো….রান্নাবান্না করতে হতো, যেন আমরা দাস। আমরা এটা চাই না, আমরা সত্যিকারের একটা জীবন চাই, আমাদের জীবন,” এভাবেই পর্দা ও রান্নাবান্নার কাজকে দাসসুলভ কাজের সাথে তুলনা করেছেন ২৫ বছরের ওয়াফা, সর্বশেষ যে সৌদি নারী তার বোনের সঙ্গে সৌদি আরব থেকে পালিয়ে এসেছেন।

ওয়াফা এবং তার বড় বোন, ২৮ বছরের মাহা আল-সুবায়ি এখন জর্জিয়ায় রাষ্ট্রীয় একটি আশ্রয় কেন্দ্রে রয়েছেন।

টুইটারে জর্জিয়া সিস্টারস একাউন্ট থেকে আন্তর্জাতিক সহায়তা চেয়েছেন এই দুই সৌদি বোন।

তারা জাতিসংঘের কাছে আবেদন জানিয়েছেন,  তাদের যেন তৃতীয় কোন নিরাপদ দেশে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়।

সৌদি আরব থেকে তারা প্রথমে জর্জিয়ায় এসেছেন, কারণ এখানে আসতে সৌদিদের ভিসা লাগে না।

”আপনাদের সাহায্য দরকার, আমরা নিরাপত্তা চাই, আমরা এমন একটি দেশে যেতে চাই, যারা আমাদের গ্রহণ করবে এবং আমাদের অধিকার রক্ষা করবে,” বলছেন ওয়াফা।

স্থানীয় গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে এই দুই বোন বলেছেন যে, তারা জর্জিয়াতে নিরাপদ বোধ করছেন না। কারণ এখানে সহজেই তাদের পুরুষ আত্মীয়রা খুঁজে বের করতে পারবেন।

”জর্জিয়া ছোট একটি দেশ এবং আমাদের পরিবারের যে কেউ এখানে আসতে পারে এবং আমাদের ধরে ফেলতে পারে,” আশংকা প্রকাশ করেছে ওয়াফা।

প্রসঙ্গত, গত কয়েক মাসে কয়েকজন তরুণী ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন’সহ বিভিন্ন রকম নির্যাতনের অভিযোগ তুলে সৌদি আরব থেকে পালিয়ে গিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় প্রপাগান্ডার খোরাক যুগিয়েছে । যাদের কেউ কেউ ইসলামি জীবনধারা ও ইসলামি বিশ্বাস ত্যাগের প্রকাশ্য ঘোষণাও দিয়েছে।

 

 

 

 

 

পূর্ববর্তি সংবাদকোরআন নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য: সেফুদার বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ
পরবর্তি সংবাদকোন্ জীবনে পালিয়ে গেল মেয়েটি?!