লাওয়ারিশ ষাঁড় পাঠিয়ে মিছিল পণ্ড করছে বিজেপি, অভিযোগ মায়াবতীর

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বিরোধীদের মিছিল-সভা বানচাল করার চক্রান্ত করছে বিজেপি৷ তাও আবার লাওয়ারিশ ষাঁড় পাঠিয়ে৷ এমনই অভিযোগ করেছেন ভারতের দলিত নেত্রী মায়াবতী৷

ভোটের সময় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষমতাসীনরা নানা রকম ষড়যন্ত্র করেন৷ একে অপরকে আক্রমণে চেষ্টার কোনও ক্রুটি রাখেন না৷ কিন্তু মায়াবতী যে অভিযোগ তুলেছেন তা শুনে চমকে গিয়েছেন অনেকেই৷ শুক্রবার বসপা সুপ্রিমো বিজেপির বিরুদ্ধে মিছিল পণ্ড করার অভিযোগ তোলেন৷ বলেন, ‘‘বিরোধীদের মিছিলে বিজেপি লাওয়ারিশ জন্তু জানোয়ার পাঠাচ্ছে৷ গতকাল কনৌজে আমাদের জনসভা ছিল৷ সেখানে একটি ষাঁড় ঢুকে পড়ে৷ বিজেপিই সেই ষাঁড় পাঠায়৷’’

বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের কনৌজে সপা-বসপার জনসভা ছিল৷ সেখানে হঠাৎ করে একটি ষাঁড় ঢুকে পড়ে৷ সভাস্থলে যথারীতি এই নিয়ে ধুন্ধুমার বেধে যায়৷ ভয়ে রাজনৈতিক কর্মীরা এদিক-ওদিক পালিয়ে যায়৷ কিছুক্ষণের জন্য কনৌজে মহাজোটের সভায় চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়৷ ষাঁড়ের গুঁতোয় এক কর্মী আহত হন৷ পুলিশকে তাড়া পর্যন্ত করে৷ পরে পুলিশই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে৷ ভিড় সরিয়ে ষাঁড়কে সভাস্থল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার জায়গা করে দেয়৷

গোহত্যা বন্ধ করতে আগেই কড়া আইন এনেছিল ‘যোগী সরকার’। অভিযোগ, তারপর থেকে লাওয়ারিশ গরুর সংখ্যা উত্তরপ্রদেশে বেড়েই চলেছে৷ এই নিয়ে নানা সমস্যায় পড়ছেন রাজ্যবাসী৷ এ সমস্যা নিয়ে জনরোষ কমাতে উত্তরপ্রদেশ সরকার তাই নানা পদক্ষেপ নিয়েছে৷ প্রশাসনকে রাস্তায় চলতি গরুদের ‘পরিচর্যা ও খেয়াল’ রাখার জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় গরুরা যাতে বিচরণ করতে পারে এবং ঘাস খেতে পারে, সেদিকেও আবার নজর রাখতে বলেন তিনি। যোগী আদিত্যনাথের নির্দেশ, ‘গরুদের বিচরণ ক্ষেত্রের জমি যাতে কেউ কেড়ে নিতে না পারে সেদিকেও নজর দিতে হবে অফিসারদের। তৈরি করতে হবে গোশালা’৷

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

পূর্ববর্তি সংবাদআল্লামা নূরুদ্দীন গহরপুরী রহ.: চলে গেছেন আজ ১৪ বছর
পরবর্তি সংবাদবিএনপির যারা শপথ নিয়েছেন তারা স্বেচ্ছায় নিয়েছেন: প্রধানমন্ত্রী