স্পেনে নির্বাচন: ক্ষমতাসীন সমাজতান্ত্রিক দল নিজেদের বিজয়ী ঘোষণা করেছে

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রাজনৈতিক বিভক্তি ও অনিশ্চয়তার মধ্যেও স্পেনের সাধারণ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন সমাজতান্ত্রিক দল নিজেদের বিজয়ী ঘোষণা করেছে।

তবে এবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতায় কমতি রয়েছে বলে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেডরো সানচেজের দল ২৯ শতাংশ ভোট পেয়েছে। কাজেই তাদের বামপন্থী পোডেমোস এবং আঞ্চলিক দলগুলো কিংবা মধ্যডানপন্থীদের সঙ্গে নিয়ে সরকার গঠন করতে হবে।

১৯৭০ এর দশকে সামরিক শাসনের অবসানের পর এই প্রথমবারের মতো উগ্রডানপন্থী একটি দল পার্লামেন্টে ঢুকতে পেরেছে।

বহুসংস্কৃতি, নারীবাদ ও অনিয়ন্ত্রিত অভিবাসনের বিরোধিতা করেছে ভক্স।

সব মিলিয়ে ১০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়েছে তারা। এতে পার্লামেন্টের সাড়ে তিনশ আসনের ভেতর ২৪টি আসন পেতে যাচ্ছে ভক্স।

বিজয়ী ভাষণে সানচেজ বলেন, বৈষম্য ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে তাদের বড় প্রতিকূলতার মুখোমুখি হতে হবে। তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ জয়ী হয়েছে, আর অতীত হেরে গেছে।

তবে এ নির্বাচনের সবচেয় বড় ঘটনা হল, পপুলার পার্টির জনপ্রিয়তায় ধস নেমেছে। ২০১৮ সালের অনাস্থা ভোটে ক্ষমতা ছাড়ার আগ পর্যন্ত স্পেন শাসন করছিল দলটি।

১৯৭৫ সালে স্বৈরশাসক ফ্রান্সিসকো ফ্রাঙ্কোর মৃত্যুর পর স্পেন গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ফিরলেও ওই প্রজন্মের জীবিত ব্যক্তিদের কাছে স্বৈরশাসনের দগদগে ঘা এখনও বাস্তব।

যে কারণে গত কয়েক দশক ধরে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে জাতীয়তাবাদী ও পপুলিস্ট পার্টিগুলোর উত্থান দেখা গেলেও স্প্যানিশদের সে পথে হাঁটতে দেখা যায়নি।

প্রচলিত দলগুলোর প্রতি অনাস্থা এবং কাতালোনিয়ায় স্বাধীনতাপন্থিদের তৎপরতা ভোটারদের মধ্যে ভোক্সের মতো কট্টর দলের জনমর্থন বাড়িয়ে দিয়েছে।

পূর্ববর্তি সংবাদ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে মোহাম্মদপুরে টিনশেড বাড়ি ঘেরাও করেছে র‌্যাব
পরবর্তি সংবাদমগবাজারে ট্রেনের ধাক্কায় এক ভাই নিহত, আরেক ভাই আহত