বি-বাড়িয়ায় হামলাকারী কাদিয়ানীদের পক্ষেই চলছে প্রোপাগান্ডা

ইসলাম টাইমস ডেস্ক :  বাংলাদেশের জাতীয় বেশ কিছু মিডিয়াতে বি বাড়িয়ার ঘটনা নিয়ে মিথ্যাচার করা হয়েছে মন্তব্য করেছেন আল্লামা সাজিদুর রহমান।

জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়ার শায়খুল হাদিস আল্লামা সাজিদুর রহমান বলেন, বিবাড়িয়ার ঘটনা নিয়ে জাতীয় কয়েকটা সংবাদমাধ্যমে ঘটনার পুরোপুরি উল্টো বিবরণ প্রকাশ হতে দেখা গেছে। বি বাড়িয়ায় মাদরাসার ছাত্রদের ওপর হামলা করা হয়েছে সেখানে ওইসব মিডিয়াতে খবর প্রকাশ করা হয়েছে-ছাত্ররা কাদিয়ানিদের ওপর হামলা চালিয়েছে। অথচ কাদিয়ানিদের সন্ত্রাসী হামলায় মাদরাসার বেশ কয়েকজন ছাত্র গুরুতর আহত হয়েছে।

মাওলানা সাজিদুর রহমান আরও বলেন, এধরণের অপপ্রচারের মাধ্যমে দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে।  মূলত মিডিয়ার সাপোর্টটা কাদিয়ানিদের দৌরাত্ম অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন দেশের এ শীর্ষ আলেম।

বি বাড়িয়া শহরের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় কাদিয়ানিরা তাদের ঘাঁটি গেড়েছে জানিয়ে আল্লামা সাজিদুর রহমান বলেন, রিক্সা করে যাওয়া সম্ভব হয় না- এমন জায়গায় তারা বাসা-বাড়ির আদলে তিন তলা উপাসনালয় বানিয়েছে। এটাকে আবার মসজিদ নাম দিয়েছে। ছাত্রদের ওপর হামলা প্রসঙ্গে আল্লামা সাজিদুর রহমান বলেন, মসজিদের নামে কাদিয়ানিদের উপাসনালয় উদ্বোধন এবং প্রশাসনের নিষেধ সত্ত্বেও বার্ষিক জলসা করতে চাইলে এলাকার কিছু মাদরাসার ছাত্র এবং দ্বীনদার মানুষ তাদেরকে সমাবেশ করতে নিষেধ করে। সমাবেশস্থলে কাদিয়ানিরা আগে থেকেই লাঠি এবং ধারালো অস্ত্র সংগ্রহ করে রেখেছিল। ছাত্ররা তাদের নিষেধ করতে যেতেই তাদের ওপর অতর্কিত সন্ত্রাসী আক্রমণ করে বসে। কয়েকজন গুরুতর আহত হয়।

উল্লেখ্য, মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে শেষ নবী না মানার কারণে উলামায়ে কেরাম সর্বসম্মতভাকে কাদিয়ানিদের কাফের ফতোয়া দিয়েছেন। এছাড়াও তাদের আরও ভ্রান্ত আকিদা-বিশ্বাস রয়েছে। অমুসলিম হয়েও নিজেদেরকে মুসলিম দাবি করে মুসলমান সমাজে মিশে নিজেদের মতবাদ প্রচারের জন্যই তাদের বিরুদ্ধে মুসলমান আন্দোলন করে থাকেন।

পূর্ববর্তি সংবাদমিয়ানমারে গভীর সমুদ্রবন্দর এবং দ্রুতগামী ট্রেন চালু করবে চীন
পরবর্তি সংবাদবগুড়া-১ আসনের এমপি আব্দুল মান্নানের ইন্তেকাল