স্মার্ট ফোনের ছোবল : আগামী প্রজন্মের ভবিষ্যত কী

শাহাদাত হুসাইন ।।

‘ঢাকায় স্কুলগামী শিশুদের ৭৭% পর্নোগ্রাফি দেখে’ একটি জাতীয় দৈনিকে শিরোনামটি দেখে আমার ন্যায় হয়তো অনেকেই আঁতকে উঠেছেন। বেসরকারি সংস্থা ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’ এর তথ্য মতে ঢাকায় স্কুলগামী শিশুদের ৭৭% পর্নোগ্রাফি আসক্ত। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেশে তৈরি এই পর্নোগ্রাফিগুলো যাদেরকে দেখানো হচ্ছে, তাদের বয়স ১৮ বছরের কম! সরকারের আইনানুযায়ী জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া সিম নিবন্ধন নিষিদ্ধ।তার মানে ১৮ বছরের নিচে মুঠোফোন ব্যবহার করতে হলে শিশুকে অভিভাবকের নামে নিবন্ধন করা সিম ব্যবহার করতে হবে।

আফসোস! আজ আমরা অভিভাবকেরা শিশুদের হাতে মুঠোফোন, ট্যাব, ল্যাপটপ ইত্যাদি তুলে দিচ্ছি। সেগুলোয় ইন্টারনেট সংযোগ চালু করে দিচ্ছি। ওদিকে ‘ওয়াইফাই’ এর খাই খাই চাহিদা তো এখন ডাইনোসরের চেয়েও ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে। আমরা কি কখনো ভেবে দেখেছি শিশুরা এসব কী কাজে ব্যবহার করছে? বাসায় ঢুকার সময় মোবাইলে কী নিয়ে ঢুকছে? তাদের পড়ার টেবিল, ব‌ইয়ের তাক কিংবা বালিশের নিচে কি কোন নিষিদ্ধ পুস্তক আছে? আমরা কি কখনো তা খুঁজে দেখেছি?
আমাদের সন্তান যে কুদৃষ্টি, অশ্লীলতা আর বেলেল্লাপনায় জড়িয়ে পড়ে ক্রমশ স্বীয় জীবনটাকে খোয়াতে বসেছে, তা-ও বা আমরা কয়জন ভেবেছি? একজন শিক্ষার্থীর জন্য সুস্বাস্থ্য, দৃঢ় মনোবল, সতেজ মস্তিষ্ক, তীক্ষ্ণ মেধা আর বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা জরুরী। যে শহরের স্কুলগামী শিশুদের ৭৭% পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত। ওকুল তো সেই কবেই ডুবেছে, একুলেও কি তারা ঘর বাঁধতে পারবে? আজকের এই শিশুই কি আগামী দিনের স্বপ্নের পৃথিবী নির্মাণ করতে পারবে?পারবে কি জাতির পাল ছেঁড়া তরীটার হাল ধরে কুলে ভিড়াতে? জীবনীশক্তি হারিয়ে কি তারা ক্রমশ হীনবল আর অসাড় হয়ে যাচ্ছে না? শুধু কুদৃষ্টিই যে কত শত রোগের কারণ, একজন অভিজ্ঞ ডাক্তারকে জিজ্ঞেস করলেই জানা যাবে।
আফসোস! পর্নোগ্রাফি নামের এই জাহান্নামি হাওয়া আর দোজখের আগুন সমাজের প্রতিটি ঘরের বাতায়ন দিয়ে ঢুকে দাউদাউ করে জ্বালিয়ে দিচ্ছে অশান্তির দাবানল। আমরা তবুও টানা-দোটানায় ভুগি। আমাদের নিস্পৃহ স্বভাব আর অশ্লীলতার প্রভাবে সন্তানের নৈতিকতায় যে কতটা অভাব দেখা দিচ্ছে তা আমাদের হৃদয়ে জাগরূক হয়না। বুঝিনা সন্তানের কত বড় ভবিষ্যতঘাতক  আমরা। তাই সন্তানের ভবিষ্যত নির্মাণ না করেই তার একটা উজ্জ্বল ভবিষ্যতের আশা করা আকাশ কুসুম স্বপ্ন ছাড়া কিছু নয়।
পূর্ববর্তি সংবাদকাতারের নতুন প্রধানমন্ত্রী শেখ খালিদ বিন খলিফা
পরবর্তি সংবাদভারতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস গভীর কূপে, ২১ জনের প্রাণহানি