আল্লামা আনোয়ার শাহ রহ. : এক পশলা স্মৃতির দরদ

শরীফ মুহাম্মদ ।।

বিশাল আয়তনের এক সীরাত মাহফিলে সভাপতিত্বের আসনে বসা ছিলেন হযরতুল আল্লাম আযহার আলী আনোয়ার শাহ রহ.। আলোচনার জন্য জন্য আমার নাম ঘোষণা করা হচ্ছে এবং দেড় ঘণ্টা সময়ের ফ্রেম বলে দেওয়া হয়েছে। আমি হযরতের পাশের চেয়ারে বসে আছি। আমার মাথা শূন্য শূন্য লাগছে। মনে হচ্ছে কোন কথাই আমি বলতে পারব না অথবা শুরু করার পর ১০ মিনিটে আমার সব কথা শেষ হয়ে যাবে। বুক-মুখ শুকিয়ে যাচ্ছে তখন।

হঠাৎ আমার হলো কী! আমি হযরতকে বললাম, আমার খুব ভয ভয় লাগছে। আমার কথা শুনতেই তিনি বললেন, একদম ভয় পেয়ো না। ‘আল্লাহুম্মা আলহিমনি রুশদি’ এই দোয়াটি সাতবার পড়ো। এরপর বয়ান শুরু করো। আমি তাই করলাম এবং কথা শুরু করলাম ভাঙ্গা ভাঙ্গা স্বরে। দশ মিনিটের মাথায় তিনি চেয়ার ছেড়ে উঠে কানে কানে আমাকে বললেন, আমি চলে যাচ্ছি। তুমি তোমার মতো করে কথা বলতে থাকো।

আমি বলতে লাগলাম। আধা ঘণ্টার মাথায় অবস্থা এমন হলো -আল্লাহর করম ও ফজল- মনে হলো কয়েক ঘণ্টা কথা বললেও কথা শেষ হবে না। তিনি আবার চেয়ারে এসে বসলেন। আমি কথা বলে যেতে লাগলাম। এক অপূর্ব সাহস জাগানিয়া সবক দিলেন সেদিন। অসামান্য মমতার পাঠ দিলেন সে রাতে। এই দরদী অভিভাবকই ছিলেন হযরত আযহার আলী আনোয়ার শাহ রহ.। গোটা দেশ ও জাতির মমতাবান রাহবার। তিনিই আজ চলে গেছেন।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ রহ. ছিলেন বাংলাদেশের ব্যক্তিত্ববান ও স্পষ্টবাদী অন্যতম অভিভাবক আলেমেদ্বীন। এদেশের এক পথনির্দেশক বরিত নাগরিক। এ মুহূর্তে ঠিক তাঁর ব্যক্তিত্ব ও অভিভাবকত্বের জায়গাটিতে যে শূন্যতা তৈরি হয়েছে, তা পূরণ করার মতো কাউকে দেখছি না।

বৃহত্তর ময়মনসিংহ এবং বিশেষত কিশোরগঞ্জে তিনি যে কী বিশাল, কী আপন এক মহিরুহ হয়ে উঠেছিলেন কিশোরগঞ্জবাসীর চোখের অশ্রুধারার দিকে তাকিয়ে দেখলে সেটা বুঝতে কারো কষ্ট হওয়ার কথা নয়। গোটা জেলার মসজিদ- মাদরাসা শুধু নয়, পথে-ঘাটে, দোকানে-বাজারে দলমত নির্বিশেষে মানুষজনের চোখে-মুখে শুধু মাতমের সুর।

চোখের দেখা তাঁকে দেখেছি সেই প্রথম কৈশোর থেকেই। কিন্তু হঠাৎ হঠাৎ কিছু আন্তরিক ঘনিষ্ঠ সান্নিধ্য লাভের সুযোগ ঘটেছে এই গত তিন-চার বছরে। আশ্বাস ও আশ্রয়ের এমন আপন আপন ভুবন তিনি আমার জন্য নির্মাণ করেছেন, মনে হলেই চোখ টলমল করে উঠছে। স্মৃতির চারপাশ ঘিরে ধরছে টুকরো টুকরো ঘটনা। আহ্ হা, এত তাড়াতাড়ি তাঁকে হারিয়ে ফেললাম!

ইয়া আল্লাহ, তোমার এই প্রিয় বান্দাকে তুমি তোমার জান্নাতে জায়গা দাও। জান্নাতুল ফেরদাউসের বাসিন্দা বানাও।

পূর্ববর্তি সংবাদআল্লামা আনোয়ার শাহ’র ইন্তিকালে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শোক প্রকাশ
পরবর্তি সংবাদআল্লামা আনোয়ার শাহ’র ইন্তিকালে শীর্ষস্থানীয় আলেমদের শোক প্রকাশ