সোনারগাঁয় কালবৈশাখী ঝড়, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: কালবৈশাখী ঝড়ে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘরবাড়ি, গাছপালা, বৈদ্যুতিক লাইন ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

শনিবার রাতে আকস্মিক এ ঝড়ে সোনারগাঁওয়ের প্রসিদ্ধ মৌসুমী ফল লিচু ও আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অধিকাংশ বাগানে লিচুর ডাল ভেঙে গেছে ও লিচু ঝরে পড়েছে।

ঝড়ে অনেক এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে যাওয়ায় ও তার ছিড়ে পড়ায় বৈদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। অনেক এলাকায় ক্যাবল নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেটের লাইন বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

শনিবার রাত ৯টার দিকে সোনারগাঁ উপজেলার উপর দিয়ে আকস্মিক কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যায়। ঝড়ে অনেক এলাকায় টিনের ঘরবাড়ি ভেঙে যায়। ধান, পাট ও শাক সবজিসহ বিভিন্ন ফসলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। অনেক এলাকায় গাছপালা ও বৈদ্যুতিক লাইনের খুঁটি ভেঙে পড়েছে।

 

গোয়ালদী এলাকার সবজি ব্যবসায়ী আবু হানিফ মিয়া জানান, করোনাভাইরাস আতংকে এমনিতেই কৃষক ও সাধারণ মানুষরা দিশেহারা। এরই মধ্যে কালবৈশাখী ঝড়ে অধিকাংশ এলাকার বিভিন্ন ফসলের ক্ষতি হওয়ায় সবার মাঝে হতাশা বিরাজ করছে।

সোনারগাঁ যুবসংঘ ক্লাবের সভাপতি মোতালেব মিয়া স্বপন জানান, ঝড়ে উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে সোনারগাঁ পৌরসভা এলাকায়। এ এলাকার বিভিন্ন গ্রামে ঘরবাড়ি, গাছপালা, বৈদ্যুতিক খুঁটি ও লিচুর সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সোনারগাঁ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. জোনাব আলী জানান, ঝড়ে সোনারগাঁয়ের বিভিন্ন এলাকায় অনেক বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়েছে।

এছাড়াও অনেক এলাকায় গাছের ডাল পড়ে বৈদ্যুতিক তার ছিড়ে গেছে। রোববার দিনভর পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যানরা চেষ্টা চালিয়ে অধিকাংশ এলাকায় লাইন মেরামত ও নতুন খুঁটি স্থাপণ করে বৈদ্যুৎ সরবরাহ চালু করতে সক্ষম হলেও এখনও অনেক এলাকায় মেরামত কাজ চলমান রয়েছে।

পূর্ববর্তি সংবাদঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পৃথক অভিযান, বিপুল ইয়াবা ও গাঁজাসহ গ্রেফতার ৪
পরবর্তি সংবাদপেটে বন্দুক ঠেকিয়ে কিশোরকে গুলি করল বিএসএফ