গাজীপুরে পরিবারের সবাইকে হত্যা : আরও ৫জন গ্রেফতার

ইসলাম টাইমস ডেস্ক:  গাজীপুরের শ্রীপুরে মা ও তিন সন্তান হত্যায় জড়িত সন্দেহে আরও পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। হত্যার ঘটনায় এ পর্যন্ত ছয় জনকে গ্রেপ্তার করা হলো।  গত মঙ্গলবার রাতে ও আজ সকালে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা তাদের গ্রেপ্তার করেন।

গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া ১৭ বছরের কিশোরের বাবাও রয়েছেন বলে জানিয়েছে র‍্যাব। আরও কয়েকজন এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট আছে বলে জানা গেছে।

গাজীপুর পোড়াবাড়ী র‌্যাব-১ এর কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ডাকাতি করতে গিয়ে চিনে ফেলায় গ্রেপ্তারকৃতরা ওই বাড়ির সবাইকে হত্যা করে বলে স্বীকার করেছে।

তিনি জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্যে বাড়ি থেকে লুট করা মালামাল ও আসামিদের রক্তমাখা জামা, নগদ ৩০ হাজার টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি জানান, প্রবাসীর ওই বাড়িতে দেশের বাইরে থেকে প্রায় ২০-২২ লাখ টাকা এসেছে, এই খবরে ঘটনার সপ্তাহখানেক আগে ডাকাতির পরিকল্পনা করে গ্রেপ্তারকৃতরা। পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২২ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির পেছনে জড়ো হন তারা। ভেন্টিলেটর দিয়ে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করেন একজন। আরেকজন গাছ বেয়ে ভেতরে যান। তাদের সহায়তায় অন্যরা বাড়িতে ঢোকেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা জানিয়েছে, ফাতেমার ঘরে গিয়ে ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে টাকা চায় তারা। এসময় ৩০ হাজার টাকা ও স্বণার্লংকার ছিনিয়ে নিয়ে মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণ করে তারা। পরে তাদের গলা কেটে হত্যা করা হয়।

র‍্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সাক্ষী না রাখার সিদ্ধান্তে প্রতিবন্ধী শিশু ফাদিলকেও হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে গ্রেপ্তারকৃতরা।

গত ২৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার আবদার বাজার এলাকার প্রবাসী রেদোয়ান হোসেন কাজলের বাড়ি থেকে স্ত্রী ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক স্মৃতি আক্তার ফাতেমা (৪৫), মেয়ে সাবরিনা সুলতানা নূরা (১৬), হাওয়ারিন (১২) ও ফাদিলের (৮) গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

গত ২৬ এপ্রিল পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) হত্যার ঘটনায় ১৭ বছরের এক কিশোরকে গ্রেপ্তার করে। আদালতে ওই কিশোর হত্যা ও ধর্ষণের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এদিকে, এই হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু জাফর মোল্লাসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে এক আদেশে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। বাকি দুজন হলেন শ্রীপুর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. তারিকুজ্জামান, পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার সোহেল রানা।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ কে এম জহিরুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পূর্ববর্তি সংবাদকওমী মাদরাসা নীতি বিসর্জন দিয়ে সরকারি অনুদান গ্রহণ করতে পারে না : শীর্ষ ৭১ আলেমের বিবৃতি
পরবর্তি সংবাদ‘সামাজিক দূরত্বে’র বালাই নেই, সুনামগঞ্জে ধান ক্ষেতে দলবল নিয়ে মন্ত্রী-এমপি