করোনা পরিস্থিতি: প্রতিদিন সাতবার ধুয়ে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে হারাম শরিফ

ইসলাম টাইমস ডেস্ক:  প্রতিদিন সাতবার ধুঁয়ে জীবাণুমুক্ত করা হয় হারাম শরিফ। রমযানের শুরু থেকে সীমিত পরিসরে মুসুল্লিদের তাওয়াফ এবং জামাতের জন্য মসজিদ খুলে দেওয়ার পর থেকে পরিচ্ছন্নতার এ কাজ শুরু হয়েছে। সৌদিভিত্তিক সংবাদমাদ্যম আল আরাবিয়া জানিয়েছে এ খবর।

করোনা ছড়িয়ে পড়েছে পবিত্রতম দুআ নগরী মক্কা, মদীনাতেও। সংক্রমণ এড়াতে সৌদি আরবে গোটা দেশজুড়ে জারি করা হয়েছে লকডাউন। হারামাইন ছাড়া অন্য মসজিদগুলোতে জামাতে নামায বন্ধ রাখা হয়েছিল। অনেকদিন বন্ধ ছিল কাবা শরিফের তওয়াফ এবং নবীজীর রওযায়ে আতহারের যিয়ারত।

তবে রমযান শুরু হওয়ার পর সীমিত আকারে খুলে দেওয়া হয়েছে মসজিদে হারাম এবং মসজিদে নববী। নির্দিষ্ট মুসল্লিরা প্রতিদিন হারামাইনে নামায পড়ছেন। তারাবীও একই নিয়মে পড়া হচ্ছে। তবে শিগগিরই ব্যাপক আকারে হারামাইন খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে।

এদিকে করোনার সংক্রমণ রোধে হারামাইন কর্তৃপক্ষ নিয়েছে নানা পদক্ষেপ। প্রতিদিন সাতবার কীটনাশক ছিটিয়ে ধোঁয়া হয় কাবা চত্বর এবং পুরো মসজিদে হারাম। প্রতি ওয়াক্ত নামাযের পর কার্পেট উঠিয়ে ফেলা হয় এবং জীবাণুমুক্ত করে আবার বিছানো হয়।

কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, প্রতিবার ধোঁয়ার আগে প্রথমে প্রায় বিশ লিটার পুরো হারাম চত্বরে ছিটানো হয়। কিছুক্ষণ আবারও জীবাণুনাশক দিয়ে তা ধোয়া হয়। মমজিদে হারামের পরিচ্ছন্নতা এবং জীবাণুমুক্ত করার জন্য বিশেষ কিছু যন্ত্র সরবরাহ করা হয়েছে বলেও জানান কর্তৃপক্ষ।

 

পূর্ববর্তি সংবাদঈদের আগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনাকাটার ব্যবস্থা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী
পরবর্তি সংবাদলকডাউন থাকবে, থাকবে না: দুনিয়া জুড়ে চলছে বিতর্ক