নারায়ণগঞ্জে করোনা উপসর্গে মারা যাওয়া স্ত্রীর লাশ নেয়নি স্বামী

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া স্ত্রীর লাশ নেননি স্বামী। করোনা উপসর্গ নিয়ে স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করানোর সময় নিজের পূর্ণ ঠিকানাও দেননি মারা যাওয়া লিপি আক্তার (২৩) নামের এই নারীর পাষাণ্ড স্বামী। চিকিৎসা চলাকালে ও খোঁজ নেয়নি। এরপর থেকে লাপাত্তা। মোবাইল ফোন ও বন্ধ।

শনিবার রাতে হাসপাতালেই মারা যাওয়ার পর লাশ নিতে আসেনি। পরে রোববার দুপুর স্থানীয় কাউন্সিলর লাশটি দাফনের ব্যবস্থা করেন। ঘটনাটি নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর এলাকার।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত নারীর নাম লিপি আক্তার (২৩)। শনিবার রাত ৮টায় হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থেকে পরিবারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে পুলিশের মাধ্যমে এবং স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানানো হলে রোববার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সহায়তায় লাশ দাফন করা হয়।

খানপুর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সামসুদ্দোহা সঞ্চয় বলেন, গত রাতে (শনিবার) আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই রোগী মারা যান। আমরা নিহতের স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছি কিন্তু তথ্যগত ত্রুটির কারণে তা সম্ভব হয়নি। শেষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ও সদর থানার সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু জানান, শনিবার রাতে হাসপাতালে নারীর মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি প্রশাসনিক ভাবে আমি জানতে পারি। পরবর্তীতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলেও কাউকে না পাওয়ায়, সিটি করেপোরেশনের সহায়তায় লাশটি দাফন করা হয়। এনসিসির মেয়রের সাথে যোগাযোগ করে তার নির্দেশনা মতে অ্যাম্বুলেন্সে করে লাশটি মাসদাইরের সিটি করপোরেশনের কেন্দ্রীয় কবরস্থানে পাঠানো হয়। সেখানেই রোববার দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

পূর্ববর্তি সংবাদরোহিঙ্গা ক্যাম্পে এখনও করোনা শনাক্ত হয়নি কারো
পরবর্তি সংবাদমুসলিম বিদ্বেষী বিজ্ঞাপন: চেন্নাইয়ে বেকারির মালিক গ্রেফতার