দেশ-বিদেশে কোরবানি নিয়ে কোনো প্রকার ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না: আল্লামা বাবুনগরী

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব ও দারুল উলুম হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, দেশে বিদেশে কোরবানি নিয়ে কোন প্রকার ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না।

আজ ২২ জুলাই (বুধবার) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি একথা বলেন।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, কোরবানি ইসলাম ধর্মের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। সামর্থ্যবান নর-নারীর উপর কুরবানী করা ওয়াজিব। কোরবানি বছরে কেবল একবার আদায় করতে হয়। কোরবানি মাধ্যমে মহান আল্লাহর নৈকট্য ও ভালোবাসা অর্জন হয়৷

আল্লামা বাবুনগরী বলেন; সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশ বাংলাদেশের ঢাকা মুহাম্মাদপুর জাপান গার্ডেন সিটি, চট্টগ্রামের হাটহাজারী ফতেয়াবাদ, সিলেটের এমসি কলেজ এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে কোরবানির ব্যাপারে বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে এলাকা কর্তৃপক্ষ। উপরোক্ত এলাকাগুলোর কর্তপক্ষের এরকম হঠকারি সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন; স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস আদালত, ব্যবসা বানিজ্য ও গার্মেন্টস-কোম্পানি চলতে পারলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানিও অবশ্যই করা যাবে। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোরবানি আদায়ের কথা বলার পরেও উক্ত এলাকাগুলোর এরকম হঠকারী সিদ্ধান্তকে চরম ধৃষ্টতা বলে অভিহিত করেন তিনি।

করোনাভাইরাসের কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানালেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শরয়ী পদ্ধতি অনুযায়ী কোরবানি করলে কোনো সমস্যা হবে না বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। সুতরাং করোনাভাইরাসের অজুহাত দিয়ে এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা মানে ধর্মীয় বিধান পালনে অবৈধ হস্তক্ষেপ করা। যা কোনো অবস্থায় মুসলমানরা বরদাশত করতে পারে না। আল্লামা বাবুনগরী অনতিবিলম্বে এরকম নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার জোর দাবি জানিয়ে বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশে কোরবানি নিয়ে কোনোপ্রকার ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না। প্রয়োজনে তাওহিদী জনতা নিষেধাজ্ঞাকারীদের মোকাবেলায় সুশৃঙ্খল আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে বলে কড়া হুশিয়ারিও দেন হেফাজত মহাসচিব।

এদিকে ভারতে কোরবানি নিষেধাজ্ঞার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হেফাজত মহাসচিব বলেন; বিশ কোটি মুসলমানদের দেশ ভারতে আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানি বন্ধ করার জন্য হাইকোর্টে মামলা করেছে উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির সাংসদ অর্জুন সিং। তাছাড়া কোরবানি উপলক্ষে ভারতীয় মুসলমানদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করা হয়ে থাকে প্রতিবছরই। এসবের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক দেশ ভারতে মুসলমানদের ধর্মীয় বিধান পালনে নিষেধাজ্ঞা এবং হয়রানি করা চরম ঘৃণিত ও নিন্দনীয় একটি কাজ। ভারত সরকারের প্রতি উপরোক্ত গর্হিত কাজ থেকে বিরত থাকার জোর দাবি জানান তিনি।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, মুসলমানদেরকে তাদের ধর্মীয় বিধান পালনে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে হবে। নতুবা ভারত একটি হিন্দুত্ববাদী সাম্প্রদায়িক দেশ হিসেবে বিশ্ব পরিমণ্ডলে ঘৃণিত ও সমালোচিত হবে। যেকোনো দেশে যার যার ধর্ম পালন করার স্বাধীনতা না থাকলে সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টি হয় এবং অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। ভারতের উলামায়ে কেরাম ও তাওহিদী জনতাকে এসমস্ত ইসলাম বিরোধী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্যও আহবান জানান হেফাজত মহাসচিব।

পূর্ববর্তি সংবাদচীনের কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দিল আমেরিকা
পরবর্তি সংবাদফটিকছড়ি কোভিড-১৯ হাসপাতালে অনুদান দিল কওমি মাদরাসার শিক্ষার্থীরা