‘দেশের মানুষের সেবা করার জন্যই হয়ত আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন’

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ২০০৪ সালে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা থেকে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হয়তো দেশের মানুষের সেবা করার জন্যই আল্লাহ তাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন।

শুক্রবার দিবসটি উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

গ্রেনেড হামলার ভয়াবহতার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ওই দিন যেন আল্লাহ নিজ হাতে আমাকে রক্ষা করেছেন। নেতাকর্মীরা সেদিন আমাকে বাঁচাতে মানবঢাল তৈরি করেছিল।’

তিনি বলেন, ‘জানি না কেন আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন। হয়তো দেশের মানুষের সেবা করার জন্যই বাঁচিয়ে রেখেছেন।’

ওই হামলার জন্য তৎকালীন বিএনপি নেতৃত্বাধীন সরকারকে দায়ী করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘এ ঘটনায় খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমান জড়িত থাকার বিষয়টি অভিযুক্তদের কথায় এসেছে। কোথায় কোন বাসায় পরিকল্পনা করা হয়েছে।’

হামলার ঘটনাকে পরিকল্পিত দাবি করে তিনি বলেন, ‘ওই ঘটনার আগে বিভিন্ন সময়ে খালেদা জিয়ার দেওয়া বক্তব্যেই তা বোঝা যায়। বলেছিল, আওয়ামী লীগ আগামী ১০০ বছরেও ক্ষমতায় আসবে না। আমি নাকি প্রধানমন্ত্রী তো দূরে থাক কোনো দিন বিরোধীদলীয় নেতাও হতে পারব না।’

‘কেন এগুলো বলেছিল? পরিকল্পনার কথা জানতো বলেই এসব বলেছিল। কারণ, আমাকে মেরে ফেললে তো আমি আর এসব হতে পারব না’ যোগ করেন শেখ হাসিনা।

এ সময় ১৫ আগস্টের শহীদ ও জাতীয় চার নেতা হত্যার ঘটনা স্মরণ করে তিনি বলেন, এর ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশের মানুষ গণতন্ত্রের স্বাদ পায়। সরকার যে জনগণের জন্য কাজ করে সেটা তারা তখন দেখতে পায়। দেশে ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনে এক গভীর ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হয়নি। এরপর ২০০৪ সালে গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটানো হয়।