দিল্লি গণহত্যা: উমর খালিদকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ ভারতীয় আদালতের

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের পর দেশদ্রোহিতা আইনের আওতায় গ্রেফতার হওয়া দিল্লির জওহেরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) সাবেক ছাত্রনেতা উমর খালিদকে ১৪ দিনের বিচার বিভাগীয় বা জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে ভারতীয় আদালত। তবে জেল হেফাজতে তার পূর্ণাঙ্গ নিরাপত্তার বিষয়টি নজরে রাখা হয়, সে বিষয়টিও মনে করিয়ে দিয়েছে আদালত। দিল্লি মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেব সারোহা এই নির্দেশ দেন।

গত ফেব্র‍ুয়ারি মাসে দিল্লিতে উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের হাতে ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল। দিল্লি পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের তরফে গত রোববার বলা হয়, ধারাবাহিক সহিংস ঘটনায় উমর খালিদ ছিলেন অন্যতম ষড়যন্ত্রকারী। রাজধানীর পুলিশের আরো বক্তব্য, সহিংসতার ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত আম আদমি পার্টির কাউন্সিলর তাহির হুসেনের সঙ্গে প্রত্যক্ষ যোগ ছিল উমর খালিদের। দু’জনে মিলে শলাপরামর্শ করেছিল, সহিংসতাকে আরো বাড়াতে ভূমিকা নিয়েছিল। সে সময়ে বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে প্রতিবাদ বিক্ষোভ চলেছিল দিল্লিতে। সেখানে উসকানিমূলক ভাষণ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ দায়ের হয় উমর খালিদের বিরুদ্ধে। এর পরে আগামী ২২ অক্টোবর তাকে আদালতে হাজির করা হবে।

 

উমর খালিদের গ্রেফতারের ঘটনায় মানবাধিকার সংগঠনগুলো জানিয়েছে, সহিংসতার অভিযোগে মুসলিমদের অন্যায়ভাবে টার্গেট করছে পুলিশ। উমর খালিদ হিন্দুত্ববাদী রাজনীতির শিকার হয়েছেন। এর আগেও ২০১৬ সালে উমর খালিদকে দেশদ্রোহিতার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তার সঙ্গে ভারতবিরোধী স্লোগান দেয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় কানহাইয়া কুমারকেও। পরে দু’জনেই জামিনে মুক্তি পান।
সূত্র : পুবের কলম

পূর্ববর্তি সংবাদবেগমগঞ্জের ঘটনায় আরো ২ গ্রেফতার
পরবর্তি সংবাদআজারবাইজান-আর্মেনিয়া যুদ্ধ: নাগোর্নো-কারাবাখ থেকে ফিরে যে বর্ণনা দিলেন সাংবাদিকরা