বুয়েটে ভেঙে ফেলা হলো আবরার ফাহাদের স্মৃতিস্তম্ভ

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ স্মরণে বুয়েটের প্রবেশমুখে ‘আট স্তম্ভ’ নির্মাণ করেছিলো বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীরা। তবে বানানোর একদিন পার হতে না হতেই সেটি ভেঙে ফেলেছে সিটি কর্পোরেশন।

গত বছরের ৬ অক্টোবর বুয়েটের এক ছাত্রলীগ নেতার কক্ষে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এর স্মরণে গত মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) দিবাগত রাত থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনের নেতৃত্বে এ স্মৃতিস্তম্ভ তৈরি করা হয়। বুধবার (৭ অক্টোবর) রাতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) উদ্যোগে এটি ভেঙে দেওয়া হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পাওয়া একটি ভিডিওতে বুলডোজার দিয়ে স্তম্ভটির ভেঙে ফেলতে দেখা যায়। ঘটনাস্থলে পুলিশের একদল সদস্যও উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে লালবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কে এম আশরাফ গণ মাধ্যমকে বলেন, এটি ভাঙ্গা গড়ার বিষয়ে আমরা কিছু জানি না। তবে জায়গাটি সিটি কর্পোরেশনের। যেহেতু এটি একটি ট্র‍্যাফিক আইল্যান্ডে তাই সেখানে ইট-পাথরের স্তুপ বা অন্য কিছু রাখা হলে সেটি তারা বুঝবে। জায়গাটি শাহবাগ ও নিউমার্কেট থানারও অধীনে হওয়ায় এ বিষয়ে তাদের জিজ্ঞাসা করার পরামর্শ দেন তিনি।

 

গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে শাহবাগ ও নিউমার্কেট থানায় যোগাযোগ করা হলেও তারা এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান। তবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাসের বলেন, এটা সিটি কর্পোরেশনই ভেঙ্গে ফেলেছে। এর কারণ হচ্ছে এই ধরনের স্তম্ভ তৈরি করতে হলে সিটি কর্পোরেশনের অনুমতি নিতে হয়। তারা অনুমতি না নিয়েই রাতারাতি এটা তৈরি করেছে।

তিনি আরও বলেন, কেউ এ ধরণের অনুমতি চাইলে, তা একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করতে হয়। তারা সেটি করেনি। আরেকটি কারণ হচ্ছে এটা রাস্তার মাঝখানে অপরিকল্পত ভাবে তৈরি করা হয়েছে। তারা যেটা করেছে, তাতে রাস্তায় দুর্ঘটনার ঝুঁকি রয়েছে। তাই সিটি কপোরেশন এটা ভেঙ্গে ফেলেছে।

 

পূর্ববর্তি সংবাদএবার আরমানিটোলায় তিতাসের গ্যাস লাইন থেকে হঠাৎ বিস্ফোরণ, আহত ৯
পরবর্তি সংবাদযে সব এলাকায় আজ গ্যাস বন্ধ থাকবে