কুমিল্লায় হিন্দুদের ওপর হামলার বিছিন্ন ঘটনায় নিয়মিত খবর রাখছে ভারত

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ভারতে সংখ্যালঘু মুসলিমরা একের পর এক গণহত্যার শিকার হলেও সেদিকে দৃষ্টি নেই তাদের। কিন্তু বাংলাদেশে  এক প্রত্যন্ত এলাকায় বিচ্ছিন্নভাবে ঘটে যাওয়া হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনায় কঠিন প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ভারত। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, তারা এই বিষয়ে বাংলাদেশের সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রাখছে।

দিল্লিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে এ বিষয়ে বিবিসির নির্দিষ্ট এক প্রশ্নের মুখে মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, ‘এই ঘটনাটির ব্যাপারে ঢাকায় আমাদের হাই কমিশন ও উপ-দূতাবাস বাংলাদেশের স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলছে। তাদের কাছে বিষয়টি আমরা উত্থাপন করেছি।’

অনুরাগ শ্রীবাস্তব আরও বলেন, ‘আমাদের এটাও জানানো হয়েছে যে বাংলাদেশ সরকার কুমিল্লার ওই ঘটনাকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।’

‘কীভাবে সেখানে সহিংসতার সূচনা হল, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলো সেটা তদন্ত করে দেখছে। সেখানে যাতে এই ধরনের কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না-ঘটতে পারে, সেটা ঠেকানোর জন্যও পুলিশ ও প্রশাসন সতর্ক রয়েছে।’

এর আগে হিন্দু পরিবারের ওপর হামলার ঘটনা সামনে আসার পর ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস বিষয়টি নিয়ে ঢাকার সঙ্গে কথা বলতে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছিল।

ভারতের পার্লামেন্টে কংগ্রেসের দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী বিবিসিকে বলেছেন, অবিলম্বে ব্যবস্থা না নিলে এই ধরনের ঘটনার প্রভাব সীমান্তের এপারেও পড়তে পারে। সেজন্য তারা চান বিষয়টি বাংলাদেশ সরকারের কাছে উত্থাপন করা হোক।

ভারতের প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানা নেই বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তবে এই প্রসঙ্গে তিনি  বলছেন, ”এই ঘটনা আসলে একটা দুর্ঘটনা, সেটা ওই দেশেও হয়। কোন সরকারই চায় না যে এগুলো হোক। আমাদের দেশ সম্প্রীতির দেশ। আমাদের দেশে মাইনরিটিরা যত সুখে আছে, অন্য অনেক দেশে সে অবস্থা নেই।”

”এরকম একটা দুর্ঘটনা ঘটলে সাথে সাথে আমরা তার বিচারের ব্যবস্থা করি, সেজন্য আমাদের কাছে তদবির করার দরকার নেই বা পরামর্শের দরকার নেই। আমরা নিজে থেকেই এ ব্যাপারে অ্যালার্ট। সম্প্রীতি কোথাও নষ্ট হোক, এটা আমরা চাই না, এটা আমাদের একটা প্রায়োরিটি ইস্যু।” বলছেন  আবদুল মোমেন।

তিনি বরং অন্যদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন, যাতে তাদের নিজের ঘরে এরকমের দুর্ঘটনা না হয়।

 

পূর্ববর্তি সংবাদমারা গেলেন নাফ নদীতে মিয়ানমার পুলিশের গুলিতে আহত বাংলাদেশি
পরবর্তি সংবাদধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চেয়ে সংসদে বিল