ভারতের কৃষক আন্দোলনে সমর্থন জাতিসঙ্ঘ ও ৩৬ ব্রিটিশ এমপির

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ভারতের কৃষক আন্দোলন সমর্থন পাচ্ছে বিদেশী নেতাদের। শনিবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের লেবার পার্টির ৩৬ জন সদস্য ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব–কে চিঠি লিখে দাবি করেছেন, পার্লামেন্টে এবিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে। এছাড়া জাতিসঙ্ঘও কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেছে।

লেবার পার্টির সদস্য, তথা ভারতীয় বংশোদ্ভূত এমপি তন্মঞ্জিৎ সিং ঢেসি চিঠিতে দাবি করেছেন, ‘‌ভারত সরকারের নতুন আইন করোনাভাইরাসের মধ্যেও কৃষকদের দেশ জোড়া আন্দোলনে ঠেলে দিয়েছে কারণ কৃষকদের শোষণ থেকে রক্ষা করতে এবং তাদের উৎপাদিত পণ্যের ঠিক মূল্য নির্ধারণে এটা ব্যর্থ।’‌

তন্মঞ্জিৎ আরো বলেছেন, ব্রিটেনের সব শিখ এবং পাঞ্জাবের সঙ্গে যাদের জড়িত সবার জন্য এটা উদ্বেগের বিষয়। সারা ভারতই এই আন্দোলনে সামিল। অনেক ব্রিটিশ শিখ এবং পাঞ্জাবিরা তাদের এমপি–দের কাছে এ ব্যাপারে আলোচনা চেয়েছেন কারণ তাদের স্বজনরা এবং পাঞ্জাবে তাদের পূর্বপুরুষদের জমি এতে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। পাঞ্জাবের তিন–চতুর্থাংশ মানুষ কৃষিকাজে যুক্ত। তাই ভারতের নতুন কৃষি আইন পাঞ্জাবিদের অত্যন্ত অসুবিধায় ফেলবে এবং এটাকে ‘‌মৃত্যু পরোয়ানা’‌ বলে অভিযোগ করেছেন তন্মঞ্জিৎ।

জাতিসঙ্ঘও কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেছে। স্থানীয় সময় শুক্রবার জাতিসঙ্ঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টেফআনি ডুজেরিক বলেন, মানুষের শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ বিক্ষোভ দেখানোর অধিকার আছে এবং কর্তৃপক্ষের উচিত তাদের সেটা করতে দেয়া। এর আগে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোও কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করেছিলেন।

বিদেশী নেতাদের এই আন্দোলনের পক্ষে মন্তব্যকে মোদি সরকার অযাচিত মন্তব্য বলে অবিহিত করেছে এবং এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে উড়িয়ে দিয়েছে। ভারতের সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় ওই কথা বলেছেন জাতিসঙ্ঘের কর্মী।

-এনটি

পূর্ববর্তি সংবাদযুদ্ধপরাধীর সন্তানরা ধর্ম ব্যবসার নামে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে, বললেন মির্জা আজম
পরবর্তি সংবাদনেতার সামনেই আ.লীগের দু’গ্রুপের হাতাহাতি ও মারামারিতে আহত ১০