বিবাড়িয়ায় র‌্যাব সদস্যকে মারধর করে কারাগারে চেয়ারম্যানপুত্র

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: র‌্যাবের একজন সদস্যকে মারধরের অভিযোগে হওয়া মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সির ছেলে আরিফুর রহমানসহ তিনজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বাকি দুইজন হলেন-উপজেলার চরচারতলা ইউনিয়নের সবুর মুন্সির ছেলে আরিয়ান সারের চঞ্চল ও আড়াইসিধা ইউনিয়নের আফাজ উদ্দিনের ছেলে মো. সালাহ উদ্দিন মিলন।

মামলার নথি থেকে জানা গেছে, র‌্যাব-১৪ ক্যাম্পের সদস্য ল্যান্স নায়েক মো. আব্দুর রউফসহ আরও এক সদস্য সাদা পোশাকে সরকারি কাজে আশুগঞ্জ বাজারের মুন্সি মার্কেটে যান। সেখানে এম এম টেলিকমের সামনে তাদের মোটরসাইকেল রেখে কাজ শেষে ফিরে আসেন। পরে দোকানের সামনে মোটরসাইকেল রাখা নিয়ে দোকান মালিক সালাহ উদ্দিন মিলন, আরিফুর রহমান, আরিয়ান সাবের চঞ্চলসহ কয়েক জন র‌্যাবের দুই সদস্যকে সেখান থেকে মোটরসাইকেল সরাতে বলেন। তারা নিজেদের র‌্যাবের সদস্য বলে পরিচয় দিলে তারা রেগে গিয়ে র‌্যাবের ওই দুই সদস্যকে মারধর করেন। খবর পেয়ে র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাতেই অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করে। পরে র‌্যাব সদস্য ল্যান্স নায়েক আব্দুর রউফ বাদী হয়ে আশুগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ জানান, র‍্যাবের মামলায় তিনজনকে আদালতে পাঠানোর পর বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

-এসএন

পূর্ববর্তি সংবাদকরাচিতে ন্যাটো জোটের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেবে রাশিয়া
পরবর্তি সংবাদকবরে মাইয়েতকে সহজে কেবলামুখী করে শোয়ানোর উপায়