মাঝ পদ্মায় লঞ্চ ও তেলবাহী ট্যাংকারের সংঘর্ষ, লাফিয়ে পড়লেন যাত্রীরা

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: অর্ধশতাধিক যাত্রী বহনকারী লঞ্চ ও একটি তেলবাহী ট্যাংকারের সংঘর্ষ হয়েছে দৌলতদিয়ায় পদ্মা নদীর মাঝামাঝি স্থানে।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

লঞ্চ থেকে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিটকে ও লাফ দিয়ে নদীতে পড়ে প্রাণে রক্ষা পান। আহত হন বেশ কয়েকজন যাত্রী। এ সময় লঞ্চটিতে দুই শতাধিক যাত্রী ছিলেন।

এতে লঞ্চটি নদীতে ডুবে না গেলেও নদীতে পড়ে এর ১০-১২ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। এ সময় নদীতে থাকা অপর একটি লঞ্চ দ্রুত এসে যাত্রীদের উদ্ধার করে।

দৌলতদিয়া লঞ্চঘাটের সুপারভাইজার মো: মফিজ উদ্দিন জানান, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের মাঝপদ্মায় দৌলতদিয়াগামী এমভি ফ্লাইং বার্ড-২ নামের একটি লঞ্চ ও ওটি সাংহাই-৪ নামের তেলবাহী একটি ট্যাংকারের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে লঞ্চের ক্ষতি হলেও কোনো মৃতের খবর পাওয়া যায়নি।

ক্ষতিগ্রস্ত লঞ্চের যাত্রী হারুন অর রশিদ জানান, বরিশাল ক্যান্টনমেন্টে যাওয়ার জন্য তিনি পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়াগামী লঞ্চে ওঠেন। নদী পার হওয়ার সময় একটি ট্যাংকার দ্রুতগতিতে এসে তাদের লঞ্চে ধাক্কা দেয়। ধাক্কায় অনেকে নদীতে পড়ে যান। তিনি সাঁতরে আরেকটি লঞ্চে উঠতে সক্ষম হন। সে সময় কে বা কারা তার ব্যাগপত্র নিয়ে গেছে। বাকিদের অন্য লঞ্চ এসে উদ্ধার করেছে।

ওই লঞ্চের সারেং আবুল হোসেন জানান, পাটুরিয়া প্রান্ত থেকে লঞ্চটি দৌলতদিয়া যাচ্ছিল। মাঝ নদী পার হওয়ার পর দুটি তেলের ট্যাংকার পাল্লা দিয়ে যাওয়ার সময় তার লঞ্চে সরাসরি আঘাত করে। এ সময় নদীতে কয়েকজন পড়ে গেলেও তারা উঠে আসতে সক্ষম হয়েছেন। তবে লঞ্চের ক্ষতি হয়েছে।

দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট ম্যানেজার মো: নুরুল আনোয়ার মিলন জানান, পাটুরিয়া থেকে দেড় শতাধিক যাত্রী নিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে আসা এমভি ফ্লাইং বার্ড-২ লঞ্চটি পদ্মা নদীর মাঝামাঝি অংশ পার হয়ে এলে ওটি সাংহাই-৪ নামের একটি তেলবাহী ট্যাংকার সরাসরি লঞ্চে আঘাত করে। এতে লঞ্চে থাকা কয়েকজন যাত্রী নদীতে পড়ে যান। পরে যাত্রীরা ফেরি ও অন্য লঞ্চে করে উঠে দৌলতদিয়া প্রান্তে আসেন।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো যাত্রী নিখোঁজের খবর পাওয়া যায়নি। তবে লঞ্চের ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া তেলবাহী ট্যাংকারটি মাঝ নদীতে আছে। আল্লাহ সহায় ছিলেন তাই বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা হয়নি।

-এমএসআই