চরমপন্থা রোধের নামে ফ্রান্সে মুসলিমদের দমন ও কড়া নজরদারির আইন পাস

ফরাসি সংসদের ৩৪৭ জন সদস্য আইনটির পক্ষে ভোট দিয়েছেন, ১৫১ এর বিপরীতে। আর ৬৫ জন সদস্য অনুপস্থিত ছিলেন।

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ধর্মীয় চরমপন্থারোধের নামে ইসলাম ও ‍মুসলিম বিদ্বেষী বিল পাশ করেছে ফ্রান্সের পার্লামেন্ট। এ আইনের মাধ্যমে ফরাসি মূল্যবোধের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন নিশ্চিত করতে মসজিদ, স্কুল ও স্পোর্টস ক্লাব নিয়ন্ত্রণ এবং ফ্রান্সকে ‘ধর্মীয় চরমপন্থাবাদ’ থেকে সুরক্ষা দেওয়ার দাবি করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ফ্রান্স পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে আইনটি পাশ হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মূলত ফ্রান্সের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠীকে নিয়ন্ত্রণ করতেই এ আইন করা হয়েছে। এ আইনের মাধ্যমে ফ্রান্সের ধর্মীয় স্বাধীনতাকে ক্ষুণ্ন করা হবে। এছাড়া আগামী বছরের নির্বাচনে ফ্রান্সের রক্ষণশীল দলের ওপর ম্যাখোঁর বিজর লাভের একটি কৌশল হিসেবে মনে করছেন।

ফ্রান্সের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাখোঁর দল লা রেপুব্লিক এন মারচে সংগরিষ্ঠ আসনের আধিকারী। এতে আইনটিরি পক্ষে ৩৪৭ জন ভোট প্রদান করেন এবং ১৫১ জন বিপক্ষে ভোট প্রদান করেন। নীরব থাকেন ৬৫ জন।

‘প্রজাতন্ত্রের নীতির প্রতি শ্রদ্ধাবোধ’ শিরোনামে বিশাল বিলটি ফরাসি জীবনের বেশিরভাগ দিক অন্তর্ভুক্ত আছে। এ আইনটির মাধ্যমে ফ্রান্সের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনগোষ্ঠীকে নিয়ন্ত্রণ করা হবে এবং মৌলিক অধিকার ও স্বাধীনতাকে বিনষ্ট হবে বলে এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অনেক মুসলিম ও পার্লামেন্ট সদস্যরা।

বিতর্কিত এই আইন রাষ্ট্রীয় সংস্থাগুলিকে বিশেষত ফ্রান্সে মসজিদ, মসজিদের অধীনে পরিচালিত সংগঠন এবং শিশুদের জন্য গৃহশিক্ষাসহ মুসলমানদের নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করার জন্য একাধিক ক্ষমতা প্রদান করবে।

ইতিমধ্যে মুসলিমদের বিরুদ্ধে ফরাসি সরকারের দীর্ঘ নিপীড়নের বিষয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে আন্তরর্জাতিক বেসরকারি সংস্থাগুলো। ১৩টি দেশের প্রতিনিধিত্বকারী ৩৬টি বেসরকারি সংস্থা এ অভিযোগ করে। প্যারিসের আইন স্বীকৃত মৌলিক অধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে সংস্থাগুলো।

সূত্র : এপি নিউজ

-এমএসআই