খাশোগি হত্যাকাণ্ড: গোয়েন্দা প্রতিবেদন থেকে ৩ সৌদি নাগরিকের নাম বাদ দিল যুক্তরাষ্ট্র

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের গোয়েন্দা প্রতিবেদন থেকে রহস্যজনকভাবে তিনজন সৌদি নাগরিকের নাম বাদ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

স্থানীয় সময় গত শুক্রবার বিকালে জো বাইডেন প্রশাসন প্রথম খাশোগি হত্যার গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে বলা হয়, খাশোগিকে হত্যার অভিযানে সরাসরি অনুমোদন দিয়েছিলেন সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

প্রতিবেদনটি প্রকাশের পরপরই সৌদি আরবের ৭৬ জন নাগরিকের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু তাতে মুহাম্মাদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া থেকে বিরত থাকে। এখন আবার গোয়েন্দা প্রতিবেদন থেকে তিনজনের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।

যে তিন ব্যক্তির নাম গায়েব করে দেওয়া হয়েছে, তাদের একজন হলেন আবদুল্লাহ মুহাম্মদ আল-হোয়ারিনি। তিনি সৌদি আরবের একজন ক্ষমতাধর মন্ত্রীর ভাই বলে জানা গেছে।

অপর দু‘জন হলেন ইয়াসির খালিদ আলসালেম ও ইব্রাহিম আল-সালিম। তাদের বিস্তারিত পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

২০১৮ সালের অক্টোবরে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নির্মমভাবে খুন হন সাংবাদিক জামাল খাশোগি। তার মরদেহ টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়। তিনি সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কট্টর সমালোচক ছিলেন।

শুরু থেকেই হত্যার নির্দেশদাতা হিসেবে মোহাম্মদ বিন সালমানকে সন্দেহ করা হচ্ছে। সৌদি আরব প্রথমে এই হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করলেও পরে আন্তর্জাতিক চাপে খুনের কথা স্বীকার করে। তবে এখন পর্যন্ত মৃতদেহের সন্ধান দেয়নি সৌদি রাজপরিবার।

সৌদি যুবরাজ প্রবাসে বসবাসকারী আরও কয়েকজন সাবেক সৌদি কর্মকর্তাকে হত্যার জন্য ঘাতক স্কোয়াড গঠন করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

-এনটি