গাইবান্ধায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে রাস্তার ইট বিক্রির অভিযোগ

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নে এলজিএসপি’র (লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট) টাকায় নির্মিত সড়কে সোলিং করে দেওয়া ইট তুলে নিয়ে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ, ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাকিল আকন্দ বুলবুল রাস্তা পাকা করার কথা বলে ওই ইটগুলো বিক্রি করে দিয়েছেন।

এলাকার লোকদের থেকে জানা যায়, কয়েক মাস আগে সাপমারা ইউনিয়নের চকরহিমাপুর গ্রামের কয়ছার ড্রাইভারের বাড়ির পাশে প্রায় ৩২০ ফুট, কৌচাকৃষ্ণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে ১২০ ফুট ও মালা গ্রামের ভেতরে প্রায় সাড়ে ৩০০ ফুট কাঁচা রাস্তা বর্ষা মৌসুমে জনসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্টের অর্থায়নে ইটের সোলিং করে দেওয়া হয়। সেখানে প্রায় ৩৫ হাজার ইট দিয়ে ওই সড়কের কাজ করা হয়। ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সম্প্রতি রাস্তাটি পাকা করার অযুহাত দেখিয়ে ইটগুলো বিক্রি করে দেন। এতে করে ওই সড়কে জনসাধরণের চলাচলের সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

তোফাজ্জল হোসেন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, ‘কয়েক মাস আগে বালু মিশিয়ে সড়কে ইটের সোলিং করা হয়। ইট তুলে নিয়ে যাওয়ার পর সেখানে পড়ে থাকা বালুর কারণে ওই রাস্তা দিয়ে কোনো যানবাহন তো দূরের কথা পায়ে মানুষ হেঁটে যাওয়াই এখন মুশকিল হয়ে পড়েছে।’

মালা গ্রামের নাছিমা বেগম নামের একজন বলেন, ‘রাস্তা থেকে ইট তুলে নিয়ে যাওয়ার কারণ শ্রমিকদের জিজ্ঞাসা করেছিলাম। তারা বলেছে রাস্তাটি পাকা করা হবে। এজন্য চেয়ারম্যান ইটগুলো তুলে নিয়ে যেতে বলেছেন।’

স্থানীয় লোকজন জানান, চক রহিমাপুর গ্রামের হারুন মিয়া নামে এক যুবক ইটগুলো কিনে নিয়েছেন। হারুন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ইটগুলো চেয়ারম্যানের কাছ থেকে টাকা দিয়ে আমি কিনে নিয়েছি। আপনারা চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।’

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান শাকিল আকন্দ বুলবুলের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী ছাবের আলীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, বিষয়টি তাদের দপ্তরের কাজ নয়। সে কারণে তিনি এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপও নিতে পারবেন না।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন বলেন, ‘কেউ বিনা প্রক্রিয়ায় রাস্তা থেকে ইট তুলে নিতে পারেন না। শুনেছি ইটগুলো চেয়ারম্যান শাকিল আকন্দ বুলবুলের নেতৃত্বে তোলা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্তপূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পূর্ববর্তি সংবাদপাঁচ উপদেষ্টার উপর আবারও আস্থা প্রধানমন্ত্রীর
পরবর্তি সংবাদরোহিঙ্গাদের জন্য ১৫০০ ঘর বানিয়ে দিয়েছে তুরস্ক