ওসির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সিরাজগঞ্জের তাড়াশ থানার ওসির বিরুদ্ধে বাদীর কাছে ঘুষ ও দেশি মাছ-মুরগি চাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী।

তাড়াশ থানার ধাপতেঁতুলিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমানের স্ত্রী মেহেরুন নেছা (৬০) ওসি মোস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তোলেন। তবে ওসি এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

শনিবার তাড়াশ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মেহেরুন নেছা বলেন, গত বছর ১২ নভেম্বর তার স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে গ্রামের কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি তার সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা করছেন।

‘গত ২ ফেব্রুয়ারি আমাদের পাঁচ বিঘার একটি পুকুরে আমার ভাতিজা আজাদুল ইসলাম মাছ ধরতে গেলে ওই প্রভাবশালীরা হত্যার জন্য তাকে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেন। খবর পেয়ে আমি পুকুরপাড়ে গেলে তারা আমাকে লাঞ্ছিত করেন। তাছাড়া বছরে এক লাখ টাকা চাঁদা না দিলে তারা আমাদের ওই পুকুরে মাছ চাষ করতে দেবেন না বলে হুমকি দেন।’

এছাড়া এ ঘটনায় পুলিশ মামলা নেয়নি বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

মেহেরুন নেছা বলেন, ‘আহত ভাতিজাকে নিয়ে থানায় মামলা করতে গেলে ওসি মোস্তাফিজুর রহমান মামলা নিতে অস্বীকার করেন। নিরুপায় হয়ে আমি নিজে বাদী হয়ে ১২ ফেব্রুয়ারি আদালতে মামলা করেছি। আদালত তদন্ত শেষে সাত কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে। অথচ আজও প্রতিবেদন দেয়নি পুলিশ।’

‘আমি খোঁজখবর নিতে থানায় গেলে ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ৩০ হাজার টাকা উৎকোচ (ঘুষ) দাবি করেন। এছাড়া তিনি দেশি মাছ ও মুরগি খাওয়ার ইচ্ছে পোষণ করেন। আবার তিনি গ্রাম্য শালিসে সমস্যা সমাধানের জন্য চাপ দিয়েছেন এবং আমাদের পুকুরেও আমাদের যেতে নিষেধ করেছেন ওসি।’

এ বিষয়ে মেহেরুন নেছা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান।

সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গাজী আব্দুস সোবাহান ও গাজী সিদ্দিকুর রহমান মেহেরুন নেছার দাবির প্রতি সমর্থন জানান।

ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ অস্বীকার করে ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘মামলা দুই পক্ষই করেছে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী যথাসময়ে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।’

পূর্ববর্তি সংবাদবাহুবল উপজেলা ছাত্র জমিয়তের কাউন্সিল সম্পন্ন
পরবর্তি সংবাদচকবাজার অগ্নিকাণ্ডে শহীদ মুফতি ওমর ফারুকের স্মরণে দোয়া-মাহফিল