জেরুজালেমে ফিলিস্তিনিদের জন্য মার্কিন দূতাবাস বন্ধ

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র ফিলিস্তিনিদের জন্য আলাদা কূটনৈতিক মিশন ‘জেরুজালেম কনস্যুলেট’ বন্ধ ঘোষণা করেছে।

সোমবার থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে। খবর এএফপি, আল-জাজিরার

এখন থেকে কনস্যুলেটটি ইসরাইলের মার্কিন দূতাবাসের সঙ্গে একীভূত হবে। এর ফলে কূটনৈতিক প্রয়োজনে এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ইসরায়েল মিশনে যেতে হবে ফিলিস্তিনিদের।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বিবৃতিতে বলা হয়, ইসরায়েলি দূতাবাসের সাথে জেরুজালেম কনস্যুলেট এক করার করা হচ্ছে। একক কূটনৈতিক মিশন গঠনের লক্ষ্যে ২০১৯ সালের ৪ মার্চ থেকে জেরুজালেমে মার্কিন কনস্যুলেট জেনারেল ও দূতাবাস এক হয়ে হবে।

১৯৯০-র দশকের অসলো চুক্তির পর থেকে এ কনস্যুলেট ফিলিস্তিনে একটি কার্যত: দূতাবাস হিসেবে কাজ করে আসছিল। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, ‘গত অক্টোবরে প্রথম এটি বন্ধ করার কথা ঘোষণা করা হয়। দক্ষতা ও কার্যকারিতা বাড়ানোর লক্ষ্যেই এটি করা হয়েছে। এর সঙ্গে ফিলিস্তিনে মার্কিন নীতির কোন সম্পর্ক নেই।’

এর আগে ২০১৮ সালের ১৪ই মে তেলআবিবে অবস্থিত ইসরায়েলের মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তর করা হয়। এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন ফিলিস্তিনিরা। তারা জেরুজালেমকে ভবিষ্যত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী মনে করে থাকেন। এবার ফিলিস্তিনিদের জন্য মার্কিন কূটনৈতিক মিশন জেরুজালেম কনস্যুলেটকে জেরুজালেমে অবস্থিত ইসরায়েলে মার্কিন দূতাবাসের সঙ্গে এক করা হলো।

কিন্তু ফিলিস্তিন নেতারা একে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের তাদের বিরুদ্ধে গৃহীত আরেকটি পদক্ষেপ হিসেবেই দেখছেন।

ফিলিস্তিনি নেতা সায়েব ইরেকাত বলেন, শান্তি প্রক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকা রাখার ইস্যুতে এ সিদ্ধান্ত কফিনের শেষ পেরেক।

পূর্ববর্তি সংবাদযুব সমাজের মূল্যবোধের অবক্ষয় ঘটেছে : লিটন
পরবর্তি সংবাদযাত্রীসহ পিকনিকের বাস মাছের ঘেরে