মাহিন: সমাজে প্রচলিত একটি ভুল নাম

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: অনেক মানুষ সন্তানের নাম রাখেন, মাহীন। এর অর্থ- হীন, তুচ্ছ, লাঞ্ছিত। সম্ভবত কুরআনে কারীমের ‘মাহীন’ শব্দ শুনেছে, ব্যস, এর অর্থ বা এটি নাম হতে পারে কি না- এসব জানা ছাড়াই সন্তানের নাম রেখে দিয়েছে।

মাহীন শব্দটি কুরআনে কারীমের কয়েক জায়গায় এসেছে। উদাহরণ স্বরূপ দু-একটি উল্লেখ করা হল :

সূরা সাজদার ৮ নং আয়াত-

ثُمَّ جَعَلَ نَسْلَهٗ مِنْ سُلٰلَةٍ مِّنْ مَّآءٍ مَّهِیْنٍ

(তিনি কাদা হতে মানব সৃষ্টির সূচনা করেছেন।) অতঃপর তিনি তার বংশ উৎপন্ন করেন ‘তুচ্ছ’ তরল পদার্থের নির্যাস হতে। এখানে মাহীন অথর্, ‘তুচ্ছ’।

সূরা কলাম-এর ১০ নং আয়াত-

وَ لَا تُطِعْ كُلَّ حَلَّافٍ مَّهِیْنٍ

এবং অনুসরণ করো না তার, যে কথায় কথায় শপথ করে, যে ‘লাঞ্ছিত’। এখানে মাহীন অর্থ, ‘লাঞ্ছিত’।

এখন বলুন, নাম রাখার আগে যদি কেউ এ বিষয়টি জানত, সে কি নিজ সন্তানের নাম ‘মাহীন’ রাখত!

আর কোনো শব্দ কুরআনে থাকার অর্থই এ নয় যে, তা দ্বারা কারো নাম রাখা যাবে। দেখতে হবে, শব্দটি কোন্ প্রসঙ্গে এসেছে, কী তার অর্থ। ফিরাউন, হামান, কারূন-নামগুলোও তো ভিন্ন ভিন্ন প্রসঙ্গে কুরআনে এসেছে। আমরা কি এগুলো দ্বারা কারো নাম রাখি?

সৌজন্যে: আল কাউসার

-আরএম